সন্তু দত্ত :- পূর্ব বর্ধমান জেলার ভাতারে ভূমশোর গ্রামের প্রেমিকার বাড়ি থেকে প্রেমিকের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করল ভাতার থানার পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে খবর,ভূমশোর গ্রামের এক নাবালিকা ভাতার গার্লস স্কুলের দশম শ্রেণীর ছাত্রী। তার সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ঘটে ভাতার গ্রামের একটি ছেলের। এই সম্পর্ক প্রায় এক বছর ধরে ছিল ।মধ্যখানে তাদের দুইজনার মধ্যে ঝগড়া হয়।

গতকাল বিকালে টিউশন পড়তে প্রেমিকা আসে বাজারে। সেই সময় দুজনার মধ্যে কথা কাটাকাটি হয় এবং প্রেমিক প্রেমিকাকে মারধর করে ।এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ জানায় প্রেমিকার ভাই ভাতার থানাই গতকাল।

রাত্রি থেকে পুলিশ তাকে খুঁজছিল। আজ সকালে তার ঝুলন্ত মৃতদেহ উদ্ধার হয় প্রেমিকার বাড়ি থেকে। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায় ভূমশোর গ্রামে।

প্রেমিকার বাড়িতে কেউ ছিল না ঘটনা ঘটার পর। চাবি লাগিয়ে পালিয়ে যায় সকালে। মৃত প্রেমিকের নাম সঞ্জয় রোম বয়স 21 বছর।

বাবা রতন রোমের দাবি, তার ছেলেকে মেরে ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে। তার কারণ তার ছেলে যদি সুসাইড করত তাহলে ভাতার বাজারে না করে ভূমশোর গ্রামে কেন করতে গেল। তিনি জানিয়েছেন লিখিত অভিযোগ করবেন ওই প্রেমিকার বাড়ির লোকের বিরুদ্ধে।এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ভাতার গ্রামে শোকের ছায়া নেমে এসেছে ।ছেলেটি পেশায় গাড়ি চালাত। পুলিশ সূত্রে খবর সমগ্র বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে। কেউ যদি দোষী সাব্যস্ত হয়, সে সাজা পাবে আইনত ভাবে। এখনো পর্যন্ত কোন অভিযোগ ভাতার থানায় জমা পড়েনি ভাতার থেকে আমিরুল ইসলামের রিপোর্ট।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here