জলপাইগুড়ি : পারিবারিক অশান্তির জের! আত্মঘাতী অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূ। ঘটনাটি ঘটেছে ধূপগুড়ি ক্ষেতি গোপ পাড়া গ্রামে। মৃতের নাম তুলসী রায় বর্মন (২২) । মৃতার বাপের বাড়ি ধূপগুড়ির পশ্চিম শালবাড়ি।

আজ থেকে ৬ বছর আগে ক্ষেতি এলাকার বাসিন্দা রবিন বর্মনের সাথে বিয়ে দেয় পরিবার। একটি পূত্র সন্তান রয়েছে বর্তমানে। আরেক সন্তানের মা হতে চলেছিলেন তিনি। বর্তমানে নয় মাসের অন্তঃসত্ত্বা ছিলেন তুলসী বলে দাবি পরিবারের। অভিযোগ এদিন সকাল বেলা শ্বশুর বাড়িতে নিজের শোয়ার ঘরেই ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান পরিবারে লোকেরা। সাথে সাথে প্রতিবেশী দের খবর দেয় রবিন বর্মন।

খবর পাঠানো হয় মেয়ের বাবা মা কেও। ফোনে জানানো হয় মেয়ে অসুস্থ ধূপগুড়ি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। যদিও ততক্ষণে মারা গেছে তুলসী। পরিবারের লোকের দড়ি কেটে তাকে নামায়। নিয়ে যাওয়া হয় ধূপগুড়ি হাসপাতালে। হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে দেখে বলেন সে মৃত। এর পরেই হাসপাতালের তরফে পুলিশকে খবর দেওয়া হয়। এদিকে এই ঘটনায় ইতি মধ্যেই স্বামী রবিন বর্মনকে গ্রেপ্তার করেছে ধূপগুড়ি থানার পুলিশ। এদিকে মেয়ের মৃত্যুর খবর পাওয়ার পর থেকে বার বার সংজ্ঞাহীন হয়ে পরছেন মৃতার মা।

এলাকাবাসীর অভিযোগাযোগ পারিবারিক অশান্তির যেরেই মহিলা আত্মঘাতী হয়েছেন। এদিকে ঘটনার তদন্তে নেমেছে ধূপগুড়ি থানার পুলিশ।

মৃতার বাবা মহেশ রায় ও মামা ভবেশ রায় জানান, তারা সকাল বেলা মেয়ের শ্বশুর বাড়ি থেকে ফোন মারফত খবর পান মেয়ে অসুস্থা। তাকে ধূপগুড়ি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। এর পরেই আমারা হাসপাতালে গিয়ে দেখি মেয়ে মৃত। কিভাবে মৃত্যু হলো বা কি কারনে মারা গেলো এখনো পরিস্কারভাবে আমরা কিছু জানি না।

 

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here