বাংলাদেশে শাড়ি পাচারের সময় ধরা পড়ল কয়েক কোটি টাকার মাল সহ ৩ ব্যাক্তি

0
79

বাবলু প্রামানিক, পাথরপ্রতিমা: ঘটনাটি ঘটে দক্ষিণ ২৪পরগনা জেলার পাথরপ্রতিমা ব্লকের অচিন্ত্য নগর গ্রাম পঞ্চায়েত অফিস সংলগ্ন এলাকায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায় ডাবলু বি 19 এইচ 4902 নাম্বারে মা সুজাতা নামে একটি লরি রাত্রি এগারোটা নাগাদ কেপ্লট ঘাটের দিকে চলে যায় এলাকার মানুষের সন্দেহ হওয়ায় সেভিক পুলিশ মারফৎ পাথরপ্রতিমা থানার আধিকারিক কে জানানো হয়।

পাথরপ্রতিমা থানা আধিকারিক কাল বিলম্ব না করে গাড়িটিকে আটক করার নির্দেশ দেন। ঘটনাচক্রে দেখা যায় গাড়িটি কেপল্টের ঘাট থেকে অচিন্ত্য নগর গ্রাম পঞ্চায়েত এর নিকট ঘুরে আসছে, তখন স্থানীয় লোকজন এবং সেভিক ভলেন্টিয়ার্স মিলে গাড়িটিকে আটক করে।

গাড়িতে তখন ছিল ড্রাইভার দিলীপ দোলুই বাড়ি ওই একই ব্লকের দিগম্বর পুর গ্রাম পঞ্চায়েতের যশোদা মোড়ে, এবং খালাসী পিন্টু ভূঁইয়া বাড়ি একি ব্লকের অচিন্ত্য নগর গ্রাম পঞ্চায়েতের লক্ষ্মীপুর বিষ্ণুপুর এলাকায়। তাদের কাছে কি মাল আছে জানতে চাওয়ায় অসংলগ্ন কথা বলতে থাকে এবং কোন চালান না থাকায় গ্রামবাসীরা এবং সিভিক পুলিশ গাড়িটিকে আটক করে।

কিছুক্ষণের মধ্যে থানা আধিকারিক সহ অন্যান্য অফিসাররা ঘটনাস্থলে পৌঁছায় গাড়িটি সহ তিন জনকে আটক করে তৃতীয় ব্যক্তি গোকুল মন্ডল কেপ্লট বাড়ি তিনি এলাকার মানুষকে গাড়িটি ছেড়ে দেওয়ার জন্য অনুরোধ জানান বিনিময় কয়েক লক্ষ টাকা দেওয়ার কথা বলেন বলে স্থানীয় সূত্রে জানা যায়

কিন্তু গ্রামের মানুষ তাতে রাজি না হওয়ায় তিনি হতাশ হয়ে যান তবে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। বর্তমানে গ্রামের মানুষরা সবাই মিলে গাড়িতে কি আছে দেখার জন্য পুলিশের কাছে দাবি করলে থানা আধিকারিক এর নির্দেশে গাড়ি থেকে ৮০টি কাপড়ের মোট নিচে নামিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে আবার গাড়িতে তুলে নেওয়া হয়। বর্তমানে গাড়িটিকে পাথরপ্রতিমা থানায় আনা হচ্ছে ঘটনায় প্রকাশ মাত্র ১ মাস আগে পাথরপ্রতিমা ব্লকের বনশ্যমনগর এলাকার নদী থেকে কাস্টম পুলিশ অফিসার দুটি ট্রলারটিকে তাড়া করে কয়েক কোটি টাকার মাল উদ্ধার করেছিলেন। এবং ট্রলার দুটি কেউ আটক করেন। এই বিষয়ে থানা আধিকারিক কে প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান অপরাধীরা উপযুক্ত শাস্তি পাবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here