সঙ্ঘের উসকানিতে আমিষ-নিরামিশাষিদের জন্য পৃথক প্রবেশদ্বারের পোস্টার আইআইটি মাদ্রাজে হস্টেলের

0
29

নিজস্ব প্রতিনিধি :সঙ্ঘের উসকানিতে আমিষ-নিরামিশাষিদের জন্য পৃথক প্রবেশদ্বারের পোস্টার আইআইটি মাদ্রাজে
হস্টেলের ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে বিভাজন ও বৈষম্য তৈরির অভিযোগ উঠল মাদ্রাজ আইআইটিতে।

আরএসএস সমর্থক কিছু পড়ুয়ার উসকানিতেই আমিষ এবং নিরামিষ ভোজীদের মধ্যে এই বিভাজন তৈরি করা হয়েছে বলে অভিযোগ।

কী হয়েছে মাদ্রাজ আইআইটি-তে? আমিষ এবং নিরামিষ ভোজী পড়ু্য়াদের জন্য হাত ধোওয়ার বেসিন থেকে শুরু করে ঢোকার এবং বাইরে বেরোনোর পথ আলাদা আলাদা করে দেওয়া হয়েছে। এমনই পোস্টার দেখা গিয়েছে আইআইটি মাদ্রাজের একটি মেসে।

আর সেটি নিয়েই ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন পড়ু্য়াদের একাংশ। সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে সেই পোস্টারের ছবিও। যদিও কর্তৃপক্ষের দাবি, ওই পোস্টারগুলি নিয়ে তদন্ত হবে, সত্যি প্রমাণিত হলে সেগুলি অবিলম্বে সরিয়ে ফেলা হবে বলেও জানিয়েছেন তাঁরা।

ক্ষুব্ধ ছাত্ররা এই ঘটনাকে নতুন ধরনের পৃথকীকরণ বলে কটাক্ষ করেছেন। ঘটনাটিকে আধুনিক অস্পৃশ্যতা বলেও বর্ণনা করেছেন ছাত্রদের একাংশ।

জানা গিয়েছে, হিমালয়ান মেস কমপ্লেক্সের দ্বিতীয় তলায় যেখানে উত্তর ভারতের পড়ুয়ারা থাকেন, সেখানেই ওই পোস্টারগুলি লাগানো হয়েছে। তাতে বলা হয়েছে, হাত ধোওয়া এবং মেসে ঢোকা বা বেরোনোর পথ আমিষ ও নিরামিশাষি পড়ুয়াদের জন্য আলাদা আলাদা।

একই টেবিলে বসে নিরামিষ এবং আমিষ খাওয়া যাবে না বলেও নির্দেশিকা দেওয়া হয়েছে। হস্টেলের এক কর্মী জানিয়েছেন, নতুন সিস্টেম চালু করা হয় হস্টেল মনিটরিং কমিটির নির্দেশের জেরে।আর এই কমিটিতে বেশ কয়েকজন সঙ্ঘ সমর্থক আছেন বলে জানা গেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here