গৌরনাথ চক্রবর্ত্তী, কাটোয়া : রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী যে সমস্ত মানবিক প্রকল্পগুলি ঘোষণা করেছেন তার মধ্যে কৃষক বন্ধু (নিশ্চিত আয়)প্রকল্প অন্যতম।রাজ্যের কয়েক লক্ষ কৃষক এই প্রকল্পের মাধ্যমে ইতিমধ্যে উপকৃত হতে শুরু করে দিয়েছে।
বুধবার

কাটোয়া-১নং ব্লকের কৃষি দপ্তরে উদ্যোগে আলমপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের ব্যবস্থপনায় আলমপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের কার্যালয় প্রাঙ্গনে কৃষক বন্ধু(নিশ্চিত আয়)প্রকল্পের নাম নথিভুক্তকরণের কাজ শুরু হয়েছে। প্রথমদিন অর্জুনডিহি,দেবগ্রাম ও বরমপুর গ্রামের কৃষকদের নাম নথিভুক্তকরণের কাজ হয়।

আলমপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান মোল্লা নজরুল ইসলাম জানান, এই প্রকল্প থেকে অনুদান পেতে গেলে নিজের নামের কম্পিউটার পরচা ছাড়া কোন কিছুই গ্রহণযোগ্য নয়। দলিল, হাতে লেখা পরচা এবং ওয়ারিশন্ সার্টিফিকেট একদম চলবে না।

জমির সবকিছু কাগজ ঠিক থাকলে বছরে দু’বার এক একর পর্যন্ত জমির মালিক ২৫০০ টাকা করে মোট ৫০০০ টাকা পেতে পারবেন। কোনভাবেই এর বেশি টাকা কোন চাষী পাবেন না।

এইরকমভাবে এক শতক হতে চল্লিশ শতক পর্যন্ত মালিক এক হাজার টাকা পেতে পারবেন এবং এরপর প্রতি শতকে কৃষক পঁচিশ টাকা করে বেশী পেতে পারবেন। প্রকল্পটি সারা বছর চলবে, সুতরাং কৃষক তাঁদের কেনা জমির দলিল, মৃত বাবা-মায়ের ওয়ারিশ সম্পত্তি রেকর্ড করে নিয়ে তাড়াতাড়ি তার কম্পিউটার পরচা তৈরি করুন। বি এল আর ও সাহেব সাহায্যের জন্য তৈরী আছেন।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here