মায়ের আবেদনে কবর থেকে ছেলের দেহ তুলে পাঠানো হল ময়না তদন্তের জন্য 

0
36

নিজস্ব প্রতিনিধি:  ছেলের মৃত্যুর কারণ নিয়ে ধোঁয়াশা। বাবা কয়েকজনকে সাথে নিয়ে কবর দিয়ে দেয় ছেলের মৃতদেহ। ময়না তদন্ত না করে কেন কবর দেওয়া হল ? মায়ের অভিযোগে ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে কবর থেকে মৃতদেহ তুলে ময়না তদন্তে পাঠালো পুলিশ।

ঘটনাটি ঘটেছে বুধবার বাগদা থানা মালিপোতা এলাকায়। মৃত যুবক সুমন মন্ডলের মা পাপিয়া মন্ডল এর দাবি, ছেলে ৮ মাস আগে পুণেতে কাজে যায়। সেখানে একটি সোনার দোকানে কাজ করতো সে । দিন কয়েক আগে মায়ের কাছে কিছু টাকা পাঠায় সুমন। এরপরই মোটা টাকা চেয়ে সুমনকে চাপ দিতে থাকে সুমনের বাবা শাজাহান মন্ডল৷

পাপিয়ার দাবি, শাহজাহানের সাথে প্রায় ১৭ বছর আগে তার বিবাহ বিচ্ছেদ হয়েছে। অভিযোগ টাকা চাওয়ার বিষয়টি ফোন করে জানায় সুমন। এমনকি পুনে থেকে বাড়ি ফিরে আসার ইচ্ছা প্রকাশ করে সে৷

এসবের মাঝেই গত সোমবার শাজাহান পাপিয়ার বাড়িতে এসে জানান তাদের ছেলে আত্মহত্যা করেছে। শোকে ভেঙে পড়েন পাপিয়া৷ সুত্র মারফৎ জানা গেছে মৃতদেহ ময়না তদন্ত না করেই কবর দেয়া হতে পারে এই মর্মে বনগাঁ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের হয়, অভিযোগ পেয়ে বনগাঁ থানার পুলিশ শাজাহানকে ডেকে তাকে দিয়ে ময়না তদন্ত করা হবে এই মর্মে একটি মুচলেকাও লিখিয়ে নেয়৷ কিন্তু  মঙ্গলবার ছেলের মৃতদেহ মালিপোতা এসে পৌঁছানোর পর মৃতদেহের ময়না তদন্ত না করেই কবর দিয়ে দেয় শাজাহান, এ খবর পেয়ে রাতেই বাগদা থানায় অভিযোগ করেন পাপিয়া। অভিযোগের ভিত্তিতে এদিন একজন ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে কবর খুঁড়ে মৃতদেহ বার করে ময়না তদন্তে পাঠায় বাগদা থানার পুলিশ। শাজাহান কেন মৃতদেহ ময়না তদন্ত করালেন না সে বিষয়টিও তদন্ত করে দেখছে পুলিশ ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here