চোলাই বিষমদের বিষক্রিয়ায় মৃতদের পরিবারের হাতে সরকারের পক্ষ থেকে দু লক্ষ টাকার চেক তুলে দিলেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়

0
47

অতনু গোস্বামী, নদীয়াঃ- সম্প্রতি নদীয়ার শান্তিপুরে বিষ চোলাই মদের বিষক্রিয়ায় এক মহিলা সহ বারো জনার মর্মান্তিক মৃত্যু ঘটেছে ও আশঙ্কাজনক অবস্থায় এখনও বহু ব্যাক্তি শান্তিপুর হাসপাতাল সহ বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।এখনও পর্যন্ত বেআইনি এই বিষ মদ কান্ডে জারিত থাকার অভিযোগে পুলিশ চার জনকে গ্রেফতার করেছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার এই বিষ মদ কান্ডের মূল অভিশপ্ত এলাকা শান্তিপুরে নৃসিংহ পুর চৌধুরী পাড়া সরজমিনে পরিদর্শন করে মৃত ও আক্রান্তদের পরিবারের সদস্য সহ স্থানীয় বাসিন্দাদের সাথে কথা বলে গিয়েছেন দক্ষিণ বঙ্গের আই জি নীরজ কুমার সিংহ সহ পুলিশের বেশ কয়েক জন আধিকারিক।
এই ঘটনার পর রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে মৃতদের পরিবার পিছু দুই লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেবার ঘোষণা করে নবান্ন। সরকারেরএই বার্তাকে বাস্তবায়িত করতে আজ শুক্রবার ঘটনার স্থলে পৌছান রাজ্যের শিক্ষা মন্ত্রী পার্থ চেট্টাপাধ্যায়।

প্রথমে তিনি শান্তিপুর হাসপাতালে বিষ মদ কান্ডে চিকিৎসাধীন ব্যক্তিদের সাথে দেখা করার পাশাপাশি মৃত বারো জনের মধ্যে দশ জনের পরিবারকে দু লক্ষ টাকার চেক তুলে দেন।বাকি দুজন গৌতম শর্মা ঝাড়খণ্ডের বাসিন্দা হওয়ার কারণে ও চন্দন মাহাতোর বিরুদ্ধে বীষ মদ বিক্রি করার অভিযোগ থাকায় সরকারের পক্ষ থেকে তাদের কোন ভাবেই আর্থিক সাহায্য করা হবে না বলে জানান পার্থ বাবু। তিনি বলেন, এই কাণ্ডে অভিযুক্ত যারা বর্তমানে অসুস্থ রয়েছেন ভবিষ্যতে বেঁচে থাকলে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এই কর্মকান্ডে শিক্ষা মন্ত্রীর সাথে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের কারা মন্ত্রী উজ্জ্বল বিশ্বাস সহ নদীয়ার জেলা শাসক সুমিত গুপ্তা ও নদীয়া জেলা পরিষদের সভাপতি রিক্তা কুন্ডু, নদীয়া জেলা তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি গৌরী দত্ত সহ শান্তিপুরের বিধায়ক অরিন্দম ভট্টাচার্য প্রমুখ।

সম্পূর্ণ বিষয়টির উপর পর্যালোচনা করে শিক্ষা মন্ত্রী বলেন, শুধুমাত্র শান্তিপুরই নয় এবার থেকে জেলার স্তরে সর্বত্র বিষ মদ বিক্রয় প্রস্তুতির বিরুদ্ধে অভিযান চালাবে জেলা প্রশাসন।এরপর থেকে যেন আর কোন ভাবে বিষ মদের কারণে আর্থিক ভাবে পিছিয়ে পড়া সাধারণ গরিব মানুষের জীবন হানি না ঘটে সেই বিষয়ে নদীয়ার জেলা শাসক ও পুলিশ সুপারকে অতিরিক্ত নজরদারি চালানোর নির্দেশ দেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here