নিরঞ্জন সদন অছি পরিষদের “নাট্যবোধ” – নিবিড় নাট্যকর্মশালা

0
43

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

মদনমোহন সামন্ত : —

“নাট্যবোধ”। নিরঞ্জন সদন অছি পরিষদ আয়োজিত সপ্তাহব্যাপী নিবিড় নাট্যকর্মশালা। এই প্রথমবার নাট্যবােধ সৃষ্টির, নাট্যচেতনা জাগানোর, নাট্যপ্রতিভা আবিষ্কারের এক অভিনব প্রায়োগিক কর্মশালা আগামীকাল থেকে আয়োজিত হতে চলেছে যাদবপুর বিজয়গড়ের নিরঞ্জন সদনেই।

 

কোভিড অতিমারী প্রায় দেড় বছর আগে থেকে প্রায় স্তব্ধ করে দিয়েছে স্বাভাবিক জনজীবন যাপন। সমাজে বুনে দিয়েছে অবিশ্বাসের এমন বীজ, যার জেরে অতি পরিচিত পাশের বাড়ির মানুষজন, মায় পাশে দাঁড়িয়ে থাকা মানুষটিকে সন্দেহের দৃষ্টি হেনে দেখতে শিখেছে মানুষ! নিজের জীবনকে স্বার্থপরের মত বাঁচিয়ে পাশের অসুস্থ মানুষটিকে মৃত্যুমুখে ছেড়ে পালিয়ে আসতে বাধ্য করেছে সমস্ত মনুষ্যত্ব বিসর্জন দিয়ে। এক ভয়ানক আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি করেছে। যদিও তার খানিকটা দায় নেতা, মন্ত্রী, একশ্রেণীর চিকিৎসাবিজ্ঞানীরাও এড়াতে পারেন না।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

তার জেরেই জীবনের সুর, তাল, লয় সব হারিয়ে প্রতি পদে ছন্দপতন ! প্রতি মুহূর্তে মানুষ স্বচ্ছন্দ জীবনে প্রত্যাবর্তনের জন্য আকুল । জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রেই মানুষ চূড়ান্ত বিপর্যস্ত! নাট্যআন্দোলনও তার বাইরে থাকতে পারেনি। নাট্যকর্মী ও সহযােগী প্রতিষ্ঠানগুলিতে কর্মরত অসংখ্য মানুষের জীবিকার প্রশ্নটিও এর সঙ্গে ওতপ্রােতভাবে জড়িয়ে থাকাতে টের পাইয়ে দিয়েছে, কী অসীম যন্ত্রণা, কী অপরিসীম অসহায়ত্ব গ্রাস করেছে সংশ্লিষ্ট প্রতিটি পরিবারের প্রতিটি সদস্যদের।

 

চারিদিকে সবাই কায়মনোবাক্যে ফিরতে চাইছেন কোভিড পূর্ববর্তী স্বাভাবিক ছন্দে । চাইছেন খোলা বাতাসে বুক ভরে শ্বাস নিয়ে জীবনসমুদ্রে ঝাঁপিয়ে জীবনমঞ্চের প্রতিটি মুহুর্তের রূপ, রস, বর্ণ, গন্ধ উপভোগ করতে। বাঁচার লড়াইতে সর্বস্ব শক্তি দিয়ে এগিয়ে যেতে। সেই সময়ের অভিনব নবজাগরণকালে নিরঞ্জন সদন অছি পরিষদের তত্ত্বাবধানে ২০ থেকে ২৬ সেপ্টেম্বর সপ্তাহব্যাপী নিবিড় নাট্যকর্মশালাটির আয়ােজন করা হয়েছে ।

 

নিরঞ্জন সদনেই ২০-২৬ সেপ্টেম্বর আয়োজিতব্য নাট্যকর্মশালাতে প্রশিক্ষণ দেবেন দেবশঙ্কর হালদার , অরুণ মুখােপাধ্যায় , মেঘনাদ ভট্টাচার্য , গৌতম হালদার , সৌমিত্র বসু , সীমা মুখােপাধ্যায় , মুরারী রায়চৌধুরি , বাদল দাশ , দেবকুমার পাল , সন্দীপ সুমন ভট্টাচার্য , সঞ্জয় পাল ও অদ্রিজা দাশগুপ্তরা। মাত্র দেড় হাজার টাকার যোগদান বিনিময় মূল্যের বিনিময়ে তাঁদের মত দিকপালদের কাছে সাতটি দিন দুপুর একটা থেকে রাত আটটা পর্যন্ত নাট্যবোধের প্রশিক্ষণ নেবেন কলকাতা, উত্তর এবং দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার পঁয়ত্রিশ জন নাট্যোৎসাহী।নাট্যআন্দোলনের আবার বেঁচে ওঠার এই প্রয়াসে প্রশিক্ষণ কর্মশালাটির শেষদিনে অংশগ্রহণকারীদের নিয়ে একটি কর্মশালাভিত্তিক নাট্য প্রযোজনা আয়োজিত হবে। শিক্ষান্তে প্রত্যেক শিক্ষার্থী শংসাপত্র পাবেন। অসংখ্য নাট্যকর্মী , নাট্যামােদী এবং অগণিত সাধারণ মানুষের কাছে নাট্যসুধারসের স্বাদ পৌঁছে দিতে কর্মশালাটি যথেষ্ট সহায়ক হবে বলেই আশাবাদী নাট্যকর্মশালা কমিটির পক্ষে জয় সোম, অঞ্জন বণিক, জগন্নাথ চক্রবর্তীরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here