সাংবাদিকদের মারধোর করে ক্যামেরা ভেঙে মোবাইল কেড়ে নেওয়ায় বর্দ্ধমান কার্জনগেটে ও হাসপাতলে প্রতিবাদে মুখর হলেন স্বপন দত্ত বাউল গানের মাধ্যমে

0
55

গৌরনাথ চক্রবর্ত্তী, পূর্ব বর্ধমান : সমাজের যেকোনো সমস্যায় ছুটে যান রাষ্ট্রপতির কাছে উপহার পাওয়া একতারা ও কোলডুগি নিয়ে নিজে বাজিয়ে বাউলগানে সমাজ সচেতন করে সমাজের অন্যায়ের প্রতিবাদ করেন রাজ্যের একমাত্র নিঃস্বার্থ শিল্পী খাজা আনোয়ার বেড় পূর্ব বর্ধমানের শিল্পী স্বপন দত্ত বাউল। গত ১২ ই জুন বৃহস্পতিবার বর্ধমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে খবর সংগ্রহ করতে গিয়ে ছবি তুলে ভিডিও করতে গিয়ে বর্ধমানের জুনিয়ার ডাক্তারদের হাতে মার খেলেন বর্দ্ধমানের সাংবাদিকরা।

তাদের ক্যামেরা ভেঙে দেওয়া হলো এবং মোবাইল কেড়ে নিয়ে অত্যাচার করা হলো এই খবর জানতে পেরেই বাউল শিল্পী স্বপন দত্ত শুক্রবার ১৩ মার্চ বর্দ্ধমান কার্জনগেট এলাকায় ও হাসপাতালের রুগী ও তার আত্মীয় স্বজন এবং জুনিযার ডাক্তারদের মাঝেই নিজের লেখা নিজের সুরে বাউল গানে সাংবাদিক দের উপর অত্যাচারের তীব্র প্রতিবাদ করে শিল্পী তার গানে ও মূল্যবান বক্তব্য রাখেন।

উপস্থিত সকলেই বাউলের গান ও কথা শুনে সচেতন হয়ে অনেকেই বলেন বাউল আপনি ঠিকই বলেছেন সাংবাদিক দের অধিকারে কারো হস্তক্ষেপ করা উচিত নয় ।সাংবাদিক কে যদি খবর সংগ্রহ করতে বাধা দেওয়া হয় তাকে মারা হয় তার ক্যামেরা ভেঙে মোবাইল কেড়ে নিয়ে তাড়িয়ে দেওয়া হয় তা হলে সাংবাদিকের মাধ্যমে সমাজের সতি মিথ্যা ঘটনা মানুষ জানবে কি করে অনেকেই বলেন স্বপন বাউল আপনার মূল্যবান গানের কথায় আমরাও সাংবাদিকের উপর অত্যাচারের জন্য কষ্ট পাচ্ছি । হাসপাতালে উপস্থিত সকলেই হাততালি দিয়ে বাউলের এই সমাজ সচেতনের প্রতিবাদি প্রচারকে সাধুবাদ জানায়।। বাউল স্বপন দত্ত একজন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন শিল্পী তিনি বলেন দেশের সরকার ও জনগণ এক জোট হয়ে যদি সাংবাদিক নিগ্রহের বিরুদ্ধে আমার মত প্রতিবাদ করে , সাংবাদিক দের সুরক্ষার জন্য যদি আইন করা হয় দোষী দের চরম শাস্তির ব্যবস্থা করা হয় তবেই দেশে ,রাজ্যে, জেলায় সাংবাদিক নিগ্রহ থেকে সাংবাদিক দের বাঁচানো যাবে। আর বাউল গানে বলেন সাংবাদিক রা তার মতনই সমাজ সচেতনের ভুমিকা নেন তারা সমাজের ও মানুষের উপকারি বন্ধু তাদের উপর শুধুমাত্র খবর সংগ্রহ করার জন্য বিনা দোষে অত্যাচার কেন হবে বার বার এই সভ্য যুগে ?

তাহলে কি এর পিছনে মিথ্যা কে লুকানোর জন্য অন্যায় কে না জানতে দেওয়ার জন্য সাংবাদিক দের মারধোর করে তাদের অধিকারে হস্তক্ষেপ করা হয়। অসামাজিক কাজ যারা করেন তারাই এমন করেন নাকি ? বিভিন্য কথায় বাউলগানে ও বক্তব্যে বুঝিয়ে আজ প্রমান করে দিলেন সাংবাদিক দের উপর অত্যাচারের বিরুদ্ধে ও সাংবাদিক নিগ্রহের বিরুদ্ধে স্বপন দত্ত একমাত্র প্রতিবাদি বাউল হয়ে সাংবাদিক দের পাশে সবসময় দাঁড়িয়ে মানুষকে তিনিই বোঝান সাংবাদিক রা মানুষের শত্রু নয় তারা সমাজের মানুষের বন্ধু ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here