বেঙ্গল ওয়াচ ডেস্ক ::পঞ্চায়েত নির্বাচনে বিজেপির তুরুপের তাস এবার মহাগুরু মিঠুন চক্রবর্তী।

 

 

 

বুধবার তিনি সুরি করে দিলেন পঞ্চায়েত নির্বাচনের প্রচার।শুরুতেই তাঁর মিটিং ছিল পুরুলিয়াতে।মিটিংয়ে রাজনৈতিক কথা বললেন,ডায়লগ দিলেন,আর প্রচুর হাসির কথাও বলেন।মিঠুন চক্রবর্তী মানেই বাঙালির মনে অন্যরকম আবেগ। বরাবরই তার সিনেমা সুপার ডুপার হিট। সামনেই পঞ্চায়েত নির্বাচন তাই জনসংযোগ বাড়াতে পুরুলিয়া জেলার লধুরকা ময়দানে বুধবার জনসভা করেন মিঠুন চক্রবর্তী। তারকাকে এত কাছ থেকে দেখতে পাওয়ার আশায় লধুরকা ময়দানে বিপুল জনসমাগম হয়েছিল।

ছবির নায়ক নায়িকারা নিজেদের সাধারণত একটু লুকিয়েই রাখে।মিঠুন চক্রবর্তীকে এতকাল শুধুমাত্র সিনেমার পর্দায় দেখতে পেয়েছিল পুরুলিয়ার মানুষেরা। রাজনীতির দৌলতে এইদিন তাঁকে কাছ থেকে দেখার সুযোগ পেল পুরুলিয়া বাসিন্দারা। মিঠুন চক্রবর্তীকে এত কাছ থেকে দেখতে পেয়ে আবেগ আপ্লুত হয়ে পড়ে আগত জনতারা ! এই দিন বিজেপি নেতাকর্মীদের বিভিন্ন অভাব অভিযোগ শোনেন মিঠুন চক্রবর্তী। কর্মীদের সমস্ত সমস্যা কথা উচ্চ নেতৃত্বের কাছে তুলে ধরার আশ্বাসও দেন তিনি। এইদিন মিঠুন চক্রবর্তীর পুরুলিয়া আগমনকে ঘিরে সেজে উঠেছিল গোটা পুরুলিয়া জেলা। মিঠুন চক্রবর্তীর আগমনে পুরুলিয়ার মানুষদের মধ্যে ব্যাপক উচ্ছ্বাস লক্ষ্য করা যায়।
তবে মিঠুন কিন্তু শতাব্দী রায়ের মতো বলেন নি,আমাকে দেখতে হয় টাকা দিয়ে।এখানে বিনা পয়সায় দেখছেন তাই দয়া করে ভোটটা দেবেন।মিঠুনের কথায় সংযম ছিল।সভা সমাপ্তি হওয়ার পর দলেরই এক সহ-সভাপতি ফাল্গুনী চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতে দুপুরের মধ্যাহ্নভোজন সারেন অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তী। খাবারের তালিকায় ছিল ভাত, ডাল, লেবু, আলু ভাজা ,শাক ভাজা, বেগুন ভাজা, কাতলা মাছের কালিয়া, চারা পোনার ঝোল, পোলাও, ফ্রাইড রাইস, পনিরের তরকারি, পায়েস, মিষ্টি ও দই। এক প্রকার এলাহি আয়োজন করা হয়েছিল মিঠুন চক্রবর্তীর মধ্যাহ্নভোজনে। পুরুলিয়ার মানুষদের এই আপ্যায়ন দেখে অভিভূত হয়ে যান অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তী। বিপুল আগ্রহে সকাল থেকে তার অপেক্ষা করার জন্য জনতাদের ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন তিনি।
ভোট বাক্সে এর কোনো প্রভাব পড়বে কিনা তা আলাদা প্রশ্ন।কিন্তু মিঠুন আবেগে কেঁপে উঠলো পুরুলিয়া – এ কথা একদম সত্যি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here