আসন্ন লোকসভা নির্বাচনের রূপরেখা তৈরি করতে ফ্যামের সভা

0
60

নিজস্ব সংবাদদাতা, নদিয়া : সোশ্যাল নেটওয়ার্কিংয়ে তৃণমূলের প্রচার ও ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনের রূপরেখা করতে সভা করল ফ্যাম। রবিবার নবদ্বীপের সাধারণ গ্রন্থাগার ভবনে এই সভায় উপস্থিত ছিলেন কল্যাণী বিধানসভা কেন্দ্রের বিধায়ক ডঃ রমেন্দ্র নাথ বিস্বাস, নবদ্বীপের বিধায়ক পুন্ডরী কাক্ষ সাহা, রানাঘাট কেন্দ্রের সাংসদ তাপস মন্ডল, |

নবদ্বীপ পৌরসভার পুরপিতা বিমান কৃষ্ণ সাহা,তৃণমূলের নদীয়া জেলা সংখ্যালঘু সেলের সভাপতি জুলফিকার আলী মন্ডল ও ফ্যামের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সৌরভ দাস সহ জেলার অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

সভার শুরুতে প্রদীপ প্রজ্জ্বলন করে সভা শুরু করেন প্রধান অথিতি সাংসদ তাপস মন্ডল। এরপর বক্তব্য রাখতে গিয়ে সাংসদ তাপস মন্ডল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে কে এক হাত নিয়ে বলেন, সাড়ে চার বছরে ৮০ টি দেশ ঘুরেছেন তিনি। রাজ কোষাগার থেকে দু হাজার কোটি টাকা নষ্ট করেছেন। ৮০ টি দেশ ভ্রমণে পাঁচ হাজার কোটি টাকা অপচয় করেছেন মোদি।

আমাদের নেত্রী যেখানে কৃষকদের ঋণ মুকুব করেছে, সেখানে মোদি শিল্পতিদের পঁয়ত্রিশ হাজার কোটি টাকা নিয়ে দেশ থেকে পালিয়ে যেতে সাহার্য্য করেছেন। সভাগৃহে উপস্থিত ফ্যামের সদস্যদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, তৃণমূল কংগ্রেস হল একটি পরিবার। পরিবারে ছোট বড় প্রতিটি কর্মী থেকে নেতা প্রত্যেকের দায়িত্ব আছে। তৃণমূলের সমস্ত উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ড কে মানুষের সামনে এমন ভাবে তুলে ধরতে হবে যে, অন্যান্য বিরোধীরা কোনও রকম চক্রান্ত করে সাধারণ মানুষ কে বিভ্রান্ত না করতে পারে। সভায় উপস্থিত সকলের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, আজকাল সোশ্যাল মিডিয়ার যুগে বাড়িতে খাবার জুটুক না জুটুক পকেটে একটি এন্ড্রয়েড ফোন থাকবেই। সেই ফোন কে সঠিক কাজে ব্যবহার করতে হবে। তিনি আরও বলেন, গণ মাধ্যমের মতো সোশ্যাল মিডিয়ারও একটা বড় ভূমিকা রয়েছে। ফ্যামের সদস্যদের এটাও মনে করিয়ে দেন যে, দলের কর্মকান্ড ছাড়া এই গ্রূপে ব্যাক্তিগত কোনও লেখা দেওয়াটা মোটেও ঠিক নয়। এছাড়াও সাংসদ বলেন, সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহারকারীরা যে ভাবে অজস্র বাংলা বানান ভুল লিখছে তাতে মানুষের কাছে ভুল বার্তা যাচ্ছে। সাধারণ মানুষ ভাবছে তৃণমূলের ছেলেরা শিক্ষিত নয়। সঠিক জিনিস সঠিক ভাবে পরিবেশন করুন। এছাড়াও সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে সাংসদ তাপস মন্ডল বলেন, তৃণমূলের খারাপ জিনিস কে গুরুত্ব বেশি দেওয়া হচ্ছে। সেখানে তৃণমূলে প্রচুর ভাল কাজের গুরুত্ব পায় না। এটা ঠিক নয়। ভাল মন্দ সমস্ত দিক তুলে ধরাটাই হল প্রকৃত গণ মাধ্যমের কাজ। এ কথা বলেন, নবদ্বীপের বিধায়ক পুন্ডরী কাক্ষ সাহা। তিনি বলেন, সোশ্যাল মিডিয়া থেকে সংবাদ মাধ্যম। প্রত্যেকেরই দায়িত্ব সঠিক খবর মানুষের কাছে পৌঁছান। তাতে মানুষের আস্থা বাড়ে। নবদ্বীপের পুরপিতা বিমান কৃষ্ণ সাহা বলেন, দলের সমস্ত উন্নয়নের প্রচার সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে সাধারণ মানুষের কাছে পৌছিয়ে দিতে হবে। আগামী লোকসভা নির্বাচনের পর প্রধানমন্ত্রী হবেন আমাদের জননেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনিই একমাত্র নেত্রী যিনি আগামীতে ১৩০ কোটি মানুষের ত্রাতা হিসাবে বিবেচিত হবেন। তৃণমূলের সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সৌরভ দাস ফ্যাম কি তা সভায় উপস্থিত সকল কে সঠিক ভাবে বুঝিয়ে বলেন। তিনি আরও বলেন, আমাদের আরও সতর্ক থাকতে হবে বি জে পির হোয়াটস আপ গ্রূপ থেকে। ফেক বা বাস্তব ভিত্তিহীন জিনিস পরিবেশন করে জন মানসে তুলে ধরছে ওরা। তার থেকে আমাদের আরও সতর্ক থাকতে হবে। তিনি বলেন, আগামী লোকসভা নির্বাচনের আগে ওরা প্রচুর টাকা লগ্নি করবে সোশ্যাল মিডিয়ায়। সভায় উপস্থিত ফ্যামের সদস্যদের উদ্দেশ্যে বলেন, বি জে পির বিভ্রান্ত মূলক প্রচার দেখলেই থানায় ডায়রি কিংবা এফ আই আর করুন। প্রশাসনের সাহার্য্য নিন। প্রশাসন ব্যবস্থা নেবে। ফ্যামের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি সৌরভ দাস বলেন, সারা দেশে বি জে পির পাঁচ হাজার হোয়াটস আপ গ্রূপের মধ্যে এই জেলায় তাদের সংখ্যা প্রায় চারশ। তিনি কার্যত স্বীকার করেন রাজ্যের অন্যান্য জেলার তুলনায় এ জেলায় তাদের শক্তি ক্রমশ বেড়ে চলেছে। ২০১৯ এর লোকসভা নির্বাচনের আগে এদিকটা আমাদের সকল কে ভাবতে হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here