নিজস্ব প্রতিনিধি, নদীয়া:- ৯ই জানুয়ারী নদীয়া জেলায় আসছেন মূখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তার আগে বামপন্থী কেন্দ্রীয় ট্রেড ইউনিয়ন ও ফেডারেশন সমূহের ডাকা ৪৮ ঘন্টা ব্যাপী সারা ভারত বনধের প্রথম দিনে মিশ্র প্রভাব দেখা যায় |নদীয়ার কৃষ্ণনগর সহ বেশ কিছু এলাকায় ।

নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসের দাম কমানো, সব বেকারদের কাজের দাবী, নূন্যতম ১৮,০০০ টাকা মাসিক বেতনের দাবী, সম কাজে সম বেতন, কর্মক্ষেত্র সহ সমস্ত ক্ষেত্রে যৌন হয়রানি বন্ধ করার দাবী সহ সর্বস্তরে নারীর নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করণ এবং বিধানসভায় মহিলাদের জন্য এক তৃতীয়াংশ আসন সংরক্ষণ করতে হবে এমনই ৭দফা দাবী নিয়ে আজ রাস্তায় নামতে দেখা যায় সারা ভারত গণতান্ত্রিক মহিলা সমিতির কার্যকর্তাদের ।

আজ নদীয়া জেলার রাণাঘাট, শান্তিপুর এবং কৃষ্ণনগরে ভীষণভাবে প্রশাসনিক তৎপরতা চোখে পড়ে । বনধের জেরে যাতে কোথাও কোনরকমের গন্ডগোল অথবা অশান্তি না হয় সেই বিষয়ে পুলিশ প্রশাসনের নজদদারী ছিল চোখে পড়ার মতন ।

আগামীকালই আবার মূখ্যমন্ত্রী আসছেন এইবিষয়েও নদীয়াজেলা প্রশাসনের ওপর স্বভাবতই চাপ অনেকটাই বেশী । তবে আজকের বনধে অনেক দোকানপাটই বন্ধ দেখতে পাওয়া যায় এবং সরকারী ও বেসরকারী অফিস কাচারিতেও উপস্থিতির হার ছিল অনেকটাই কম, সেই তুলনায় আজকের দিনে চড়ুইভাতির সংখ্যাটা ছিল চোখে পড়ার মতো ।

বনধের পরবর্তী ২৪ ঘন্টা কেমন কাটে সেদিকেই সবার দৃষ্টি থাকবে ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here