নবদ্বীপ পুরসভার উদ্যোগে শুরু হলো ছাত্র যুব উৎসব

0
101

নিজস্ব সংবাদদাতা, নদিয়া  :পশ্চিমবঙ্গ সরকারের ক্রীড়া দপ্তর ও যুব কল্যাণ বিভাগের ব্যবস্থাপনায় শুরু হল তিনদিন ব্যাপী ছাত্র যুব উৎসব।

অন্যান্য বছরের ন্যায় এবছরও নবদ্বীপের সুপ্রাচীন হিন্দু স্কুলের সভাগৃহে এক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে ছাত্র যুব উৎসবের সূচনা হয়।

প্রদীপ প্রজ্জ্বলন করে অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা করেন নবদ্বীপ কেন্দ্রের বিধায়ক ও নবদ্বীপ পৌরসভার পুরপিতা বিমান কৃষ্ণ সাহা। এদিন অনুষ্ঠান শুরুর আগে ছাত্র যুব উৎসব কতৃপক্ষ নবদ্বীপ শহর জুরে এক বর্ণাঢ্য পদযাত্রায় আয়োজন করে। উৎসব উপলক্ষ্যে এদিন সকালে নবদ্বীপ পৌরসভার সামনে থেকে বিশাল পদযাত্রা করা হয়।

বর্ণাঢ্য পদযাত্রা টি পৌরসভার সামনে থেকে শুরু হয়ে একে একে পাঁচমাথা মোড় রাধাবাজার,পোড়ামা তলা, হরিসভা পাড়া বুড়োশিবতলা হয়ে হিন্দু স্কুলে এসে শেষ হয়।

এই উৎসব কে কেন্দ্র করে এদিনের পদযাত্রায় সামিল ছিলেন, নবদ্বীপ কেন্দ্রের বিধায়ক পুন্ডরীকাক্ষ সাহা, পৌরসভার পুরপিতা বিমান কৃষ্ণ সাহা ও নবদ্বীপ অঞ্চলের  যুব কল্যাণ দপ্তরের দায়িত্বপ্রাপ্ত আধিকারিক কৌশিক রায় প্রমুখ। এছাড়াও ছিলেন শহরের প্রায় প্রতিটি স্কুলের ছোট ছোট পড়ুয়া থেকে শুরু করে বিশিষ্ঠ অধ্যাপক,শিক্ষক, লেখক,শিল্পী, কবি সাহিত্যিক, বুদ্ধিজীবী সংগঠক ও খেলোয়াড়গণ। অনুষ্ঠানের সূচনার পর উপস্থিত ছাত্র ছাত্রীদের উদ্দ্যেশে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখতে গিয়ে বিধায়ক পুন্ডরীকাক্ষ সাহা বলেন, ছাত্র ছাত্রীরাই হল দেশের ভবিষ্যৎ। তাদের জন্য দেশ গর্বিত হয়। এধরণের অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে নিজেদের মেধার প্রকাশ ঘটাতে হবে। বিধায়ক আরও বলেন, আবৃতি হোক আর কবিতা কিংবা পড়াশোনা, সকল বিষয় কে মনোযোগ সহকারে অনুশীলন করলে সাফল্য আসবেই। পুরপিতা বলেন, ছাত্র যুব উৎসব হল মা মাটি মানুষের সরকারের একটি অন্যতম ভাবনা। এধরণের অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে ছোট ছোট ছাত্র ছাত্রী মেধার বিকাশ কে সামনে আনতে পারে।বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হওয়া তিনদিন ব্যাপী ছাত্র যুব উৎসবে ছাত্র ছাত্রীদের জন্য থাকছে আবৃতি, অঙ্কন, প্রশ্নোত্তর, বিশ্ব সংবাদ,সংগীত,লোকনৃত্য, আদিবাসী নৃত্য,রবীন্দ্র সংগীত,নজরুল সংগীত,বাংলা আধুনিক গান,রবীন্দ্র নৃত্য এবং দ্বিজেন্দ্র গীতি। ছাত্র যুব উৎসবের অন্যতম উদ্যোক্তা রাজদীপ চট্টপাধ্যায় জানান, প্রতি বছর ছাত্র যুব উৎসব দুদিন ধরে পালন করা হত। এবছর অর্থাৎ ২০১৮-১৯ ছাত্র যুব উৎসব কে দুদিনের জায়গায় তিন দিন করা হয়েছে। এবিষয়ে তিনি জানান, এই উৎসব কে কেন্দ্র করে বিভিন্ন বিভাগে ইভেন্টের সংখ্যা ক্রমশ বেড়ে চলায় বাধ্য হয়ে দুদিনের জায়গায় তিনদিন রাখা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here