নিজস্ব সংবাদদাতা, মালদাঃ বিদ্যালয়ের সামনে থেকে নবম শ্রেণীর ছাত্রীকে অপহরণের চেষ্টা, ছাত্রীর চিৎকারে অপহরণকারী কে পাকড়াও করে গণধোলাই, শ্রী ঘরে ঠাই যুবকের, বিহার যোগের সন্দেহ, তীব্র চাঞ্চল্য ছড়ালো এলাকায়।  ঘটনাটি ঘটেছে মালদা জেলার হরিশ্চন্দ্রপুর থানার অন্তর্গত কুশিদা হাই স্কুলের সামনে। স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে,  বিদ্যালয়ে সেই সময় ফুটবল খেলা চলছিল। নবম শ্রেণীর নাবালিকা ওই ছাত্রী বিদ্যালয়ের বাইরে বের হয় খাওয়ার জিনিস কেনার জন্য। সেই সময় অজ্ঞাত পরিচয় এক যুবক তাকে প্রলোভন দেখিয়ে বাইকে করে নিয়ে যেতে চায়। ছাত্রীটি রাজি না হলে তাকে জোর করে বাইকে তুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। সে চিৎকার করতেই ছুটে আসে আশে পাশে থাকা এলাকাবাসী। তারপর ওই অপহরণকারীকে ধরে ফেলে গণধোলাই দিয়ে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়। ধৃত যুবকের নাম মুস্তাক খান(২৪)। বাড়ি চাঁচল থানার লয়দা বিস্টুপুর এলাকায়। এদিকে পুজোর কয়েক দিন আগে এই ঘটনা নিয়ে তীব্র চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে এলাকায়। বিদ্যালয়ের নিরাপত্তা এবং বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের উদাসীনতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে এলাকাবাসী। ওই ছাত্রীর বাড়ির লোকের সন্দেহ তাকে অপহরণ করে হয়তো বিহারে পাচার করে দেওয়া হতো। কারণ ওই এলাকা থেকে ঢিল ছোরা দূরত্বেই বিহার। ওই ছাত্রীর বাড়ির পক্ষ থেকে হরিশ্চন্দ্রপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। ওই অপহরণকারীর কি উদ্দেশ্য ছিল? তার সঙ্গে আর কার কার যোগ রয়েছে সমগ্র ঘটনা খতিয়ে দেখছে হরিশ্চন্দ্রপুর থানার পুলিশ। ধৃত যুবককে সোমবার চাঁচল মহকুমা আদালতে পেশ করা হয়েছে। হরিশ্চন্দ্রপুর থানার পুলিশ জানিয়েছে অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা হয়েছে। আজ ধৃত যুবক কে চাঁচল মহকুমা আদালতে তোলা হয়েছে। গোটা ঘটনা ঘটিয়ে দেখা হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here