এবার ব্রিগেডে তৈরি হচ্ছে ৫ মঞ্চঃ তুলে ধরা হবে বঙ্গসংস্কৃতিও

0
33

নিজস্ব প্রতিনিধি : শুধু জমায়েতের নিরিখ নয়, রাজনৈতিক তাৎপর্যের নিরিখেও অতীতের সব রেকর্ড ছাপিয়ে যেতে চলেছে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ডাকে ১৯ জনুয়ারির ব্রিগেড সমাবেশ।

লোকসভা নির্বাচনের আগে ২০১৯-এর অন্যতম গ্র্যান্ড শো। রাজনৈতিক তারকা সমাবেশের কথা মাথার রেখে মঞ্চ বিন্যাসেও থাকছে চমক। মূল মঞ্চ-সহ দু’পাশে দুটি করে মোট ৫ টি মঞ্চ তৈরি হচ্ছে এবার।

মূল মঞ্চটি হবে ১০০ ফুট লম্বা এবং ৪৫ ফুট চওড়া। উচ্চতা ১২ ফুট। মূল মঞ্চের ডান ও বাম দুদিকেই দুটি করে মঞ্চ থাকবে। মূল মঞ্চে তৃণমূল নেত্রী-সহ শাসক দলের হাতেগোনা নেতা-নেত্রীরা থাকবেন। এই মঞ্চের মূল আকর্ষণ ভিন রাজ্য থেকে আসা বিরোধী রাজনীতির তারকারা।

পরের মঞ্চে থাকবেন দলের সাংসদ, বিধায়ক ও মেয়ররা। তৃতীয় মঞ্চে বসবেন জেলা পরিষদের সভাধিপতি ও অন্য পদাধিকারীরা। চতুর্থ মঞ্চটি থাকছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের জন্য। ঠিক হয়েছে এই চতুর্থ মঞ্চ থেকেই বাংলার সংস্কৃতির সম্পদকে দেশের সামনে তুলে ধরবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

ঝাড়গ্রাম, পশ্চিম মেদিনীপুর, পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, বীরভূম – এই পাঁচ জেলাকে কেন্দ্র করেই আদিম যুগ থেকে বিবর্তনের মাধ্যমে উঠে এসে নতুন রূপ পেয়েছে বাংলার মূল লোকসংস্কৃতি। বাংলার ছৌ নাচ পৃথিবী বিখ্যাত।

তার সঙ্গে ধামসা-মাদল, বাউল গাল, কীর্তন, উত্তরের ভাওয়াইয়ার মতো অসংখ্য বলিষ্ঠ ঐতিহ্যশালী লোকসংস্কৃতি নিয়ে বাংলা সমৃদ্ধ।

জানা গেছে, উনিশের ব্রিগেডকে শুধু রাজনৈতিক মঞ্চ হিসাবে নয়, বাংলার লোকসংস্কৃতির ঐতিহ্যকে সারা দেশের সামনে তুলে ধরতে চান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এখনও পর্যন্ত পাওয়া খবর অনুয়ায়ী, ১৯ জানুয়ারি তৃণমূলের কর্মসূচী শুরুর আগে ধামসা-মাদলের ধ্বনিতে কাঁপবে কলকাতা। থাকছে খোল কীর্তনের আয়োজনও।

উল্লেখ্য, বহু ঐতিহাসিক সমাবেশের সাক্ষী কলকাতার ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ড। সেই তালিকায় অন্যতম হল ১৯৫৫ সালে ক্রুশ্চেভ-বুলগানিনের কলকাতা সফর উপলক্ষ্যে সভা। যে মঞ্চে ছিলেন তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী পণ্ডিত জওহরলাল নেহেরু, বাংলার মুখ্যমন্ত্রী বিধানচন্দ্র রায় ও অভিভক্ত কমিউনিস্ট পার্টির নেতা অজয় ঘোষ।

বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর ১৯৭২-এ ইন্দিরা-মুজিবের সভাও মানুষের ভিড়ের নিরিখে ব্রিগেডে ইতিহাস রচনা করেছিল। আবার ১৯৯২-এর ২৫ নভেম্বর ব্রিগেডে এক বিপুল জনসমাবেশে তৎকালীন বাম সরকারের ‘মৃত্যুঘণ্টা’ বাজিয়ে সারা দেশে তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এমন ঐতিহাসিক সরণি বেয়েই মহাব্রিগেডের প্রতীক্ষায় প্রহর গুনছে ‘সিটি অফ জয়’।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here