তুহিন শুভ্র আগুয়ান; হলদিয়াঃছোটো থেকেই নাটক নিয়ে মনে একরাশ স্বপ্ন ছিল সুরজিতের মনে। যে স্বপ্ন আজ হয়তো অনেকাংশেই পূরণ করতে সফল হয়েছে সুরজিত।

কিন্তু কোথাও যেন তার এই স্বপ্ন পূরণে থেকে গেছে খামতি।বর্তমান আধুনিক প্রজন্মের শিশুদের অধিকাংশেরই এখন নাটকের প্রতি অনিহার সৃষ্টি হয়েছে। যে সৃষ্টি পীড়া দেয় নাট‍্যপ্রেমী সুরজিতের মনে। তাই বর্তমান আধুনিক প্রজন্মের শিশুদের মধ্যে নাট‍্য প্রসারের লক্ষ্যে অবৈতনিকভাবে নাট‍্য প্রশিক্ষণ শুরু করেছেন মহিষাদলের নাট‍্যপ্রেমী সুরজিৎ সিনহা।

গত শনিবার জেলার একঝাঁক খুদে শিশুদের নিয়ে শুরু হয় সুরজিতের এই অবৈতনিকভাবে নাট‍্য প্রশিক্ষণের। যার শুভ সূচনাও করে সেই খুদেরাই। হাতে মোমবাতি নিয়ে একে অপরের হাতে হাত রেখে প্রদীপ প্রজ্বলনের মাধ্যমে এই প্রশিক্ষণের সূচনা করে তারাই।

তবে প্রশিক্ষণের অধিকাংশ খুদের মধ্যেই কোথাও যেন লুকিয়ে রয়েছে অদৃশ্য কোনো দুঃখ। যে দুঃখ কোনো পাওয়া না পাওয়ার নয়,এ দুঃখ হারানোর দুঃখ। নাট‍্য প্রশিক্ষণের অধিকাংশ শিশুই অনাথ,তারা এক্তারপুর শিশু সদনের আবাসিক। ছোটো থেকেই নিজেদের পরিবার পরিজনদের হারিয়ে বড় হয়ে ওঠা তাদের। শনিবার সুরজিতের ডাকে এই প্রশিক্ষণে হাজির হয় এমনই দীপক,সন্দীপ, অর্ণবদের মতো অনাথ খুদেরা। সুরজিতের ছোটো থেকেই কোথাও যেন মনে গেঁথে রয়েছে নাটক। তাই তিনি নাটক নিয়েই এখন জেলার মানুষের কাছে নাটকের রাজা সুরজিৎ সিনহা নামে পরিচিত। সুরজিৎ নাট‍্যচর্চার প্রসার ও প্রচারের জন্য এলাকায় একদল তরুণ-তরুণীদের নিয়ে গড়েছেন একটি নাটকের দলও। যার নাম মহিষাদল শিল্পকৃতি।

১৯৪৪ সাল থেকে জেলার নাট‍্যচর্চার প্রচার,প্রসার ও মানোন্নয়নের জন্য পথচলা শুরু করে মহিষাদল শিল্পকৃতি। যা আজও থেমে থাকেনি।বরং আজ মহিষাদল শিল্পকৃতি জেলার আঙিনা ছাড়িয়ে আন্তর্জাতিকস্তরে নাম লিখিয়েছে।সারাবছর শুধু নাট‍্যচর্চা ও নাট‍্য প্রশিক্ষণ ছাড়াও শিল্পকৃতির কর্মসূচীর তালিকার মধ্যে উঠে আসে স্বচ্ছ ভারত অভিযান, বিভিন্ন বিদ্যালয়ে নাট‍্য বিষয়ক সেমিনার, রবীন্দ্র-নজরুল জয়ন্তী, বৃক্ষরোপন কর্মসূচি,দুস্হঃ শিশুদের বস্ত্র প্রদান ও তাদের নিয়ে পূজা পরিক্রমার মতো বিশেষ মহৎ কাজগুলি। সুরজিতের এই মহিষাদল শিল্পকৃতি এবছর ২৬তম বর্ষে পদার্পণ করল,তাই এইসকল ধারাবাহিক কর্মসূচি ছাড়াও এবছর কয়েকটি বিশেষ কর্মসূচির ভাবনা নিয়েছে মহিষাদল শিল্পকৃতি।উল্লেখ, এবছর অবৈতনিক ভাবে খুদে শিশুদের তারা বিশেষ নাট‍্য প্রশিক্ষণের ব‍্যবস্হা করেছে। যার প্রথমদিনেই খুদেদের প্রশিক্ষণ দেন এই কর্মকাণ্ডের উদ‍্যোক্তা তথা জেলার মানুষের কাছে পরিচিত নাটকের রাজা সুরজিৎ। এদিন প্রশিক্ষণে সহযোগ করেন বিশ্বজিৎ, দেবনাথ, সুতীর্থা, দীপশিখার মতো সংস্হার তরুণ-তরুণীরা।

এদিনের প্রশিক্ষণে প্রায় ৩০জন খুদে শিশু প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে।যাদের মধ্যে ২২জন স্হানীয় এক্তারপুর শিশু সদনের আবাসিক। শনিবার প্রশিক্ষণের পর খুদেরা সম্মিলিত কন্ঠে বলে,”পড়াশোনার পাশাপাশি আমাদের নাটক খুবই ভালো লাগছে।আমার খুব মজা করলাম “।এই কর্মকাণ্ডের উদ‍্যোক্তা তথা মহিষাদল শিল্পকৃতির সম্পাদক সুরজিৎ সিনহা জানান,”পরবর্তী প্রজন্মকে সাংস্কৃতির প্রবাহমানতার জোয়ারে ভাসিয়ে জেলার নাট‍্যচর্চার ধারাকে অক্ষুন্ন রাখতে আমাদের এই প্রচেষ্টা। আগামীদিনে কলকাতা সহ ভারতের নানাপ্রান্ত থেকে প্রশিক্ষকেরা খুদেদের নাট‍্য প্রশিক্ষণ দিতে উপস্থিত থাকবেন।”
সবমিলিয়ে এখন জমজমাট খুদেদের নিয়ে সুরজিতের এই নাট‍্য প্রশিক্ষণ।আগামীদিনে এইধরনের উদ্যোগ এগিয়ে চলুক এমনটাই চান সকলেও।।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here