নিজস্ব প্রতিবেদক: উন্নত নাগরিক পরিষেবার দাবি , সাংসদ তহবিলের কাজে বাধাদান ও জন কল্যাণমূলক কাজে কাটমানি আদায়ের বিরুদ্ধে বিজেপির যুবমোর্চার পক্ষ থেকে শুক্রবার আসানসোল পুরসভা ঘিরে বিক্ষোভ কর্মসূচির ডাক দেওয়া হয় ৷

তবে বিজেপির এদিনের কর্মসূচি ঘিরে রণক্ষেত্রর চেহারা নেয় আসানসোল বাজার অঞ্চল ৷ প্রশাসনিক সূত্রে খবর বিজেপির এই কর্মসূচিতে পুলিশের অনুমতি ছিলনা ৷

তাই সকাল থেকেই বিশাল পুলিশ বাহিনী RAF ও কমবেট ফোর্স প্রস্তুত হয়ে থাকে ৷ পাশাপাশি পুরসভাকে কেন্দ্র করে চারদিকে শহরে মোট ৭টি ব্যারিকেড গড়ে তোলা হয় ৷

তবে গীর্জা মোড় থেকে পুরসভার মূল ফটকের দিকে দূটি ব্যারিকেড গড়ে তোলা হয় ৷ অন্যদিকে এদিন আসানসোল পুরসভার পক্ষ থেকে পুরসভা প্রাঙ্গনে এক রক্তদান শিবিরের আয়োজন করা হয় ৷ তবে বিজেপির যুব মোর্চার পক্ষ থেকে দুপুর ১২:৩০ নাগাদ গীর্জা মোড় থেকে পুরসভার দিকে যুব মোর্চার নেতা অরিজিত রায় , বাপ্পা চ্যাটার্জীর নেতৃত্বে এক বিশাল মিছিল এগিয়ে আসে ৷ তারা বল প্রয়োগের মাধ্যমে প্রথম ব্যারিকেড ভেঙে ফেলে এর দ্বিতীয় ব্যারিকেডও ভেঙে পুলিশের সাথে ধস্তাধস্তিতে জড়িয়ে পড়ে ৷ এর ফলে বাধ্য হয়ে পুলিশকে লাঠিচার্জ করতে হয় বিজেপি সমর্থকদের ছত্রভঙ্গ করতে ৷ তবে প্রথম পর্যায়ে বিজেপি সমর্থকেরা সরে গেলেও দ্বিতীয় দফায় এলোপাথাড়ি ইট বৃষ্টি কাচের বোতল ছুড়তে ছুড়তে এগিয়ে আসে ৷ এর ফলে দুজন পুলিশ কর্মী আহত হয় ৷ এরপরেই পুলিশের পক্ষ থেকে পরিস্থিতি সামাল দিতে ১৪-১৫ টি টিয়ার সেল ফাটানো হয় ৷ পাশাপাশি জল কামান প্রস্তুত রাখা হয় ৷ তবে পুলিশের লাঠি চালানোতে দুজন বিজেপি কর্মী আহত হয় ৷ এদিন পুলিশের পাশাপাশি দলের নির্দেশে পুলিশকে ভরসা না করে বিজেপিকে বাধা দিতে তৃণমূলের যুব সম্প্রদায় ও কর্মী সমর্থকেরা প্রস্তুত থাকে ৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here