মদনমোহন সামন্ত, ৪ জুলাই, কলকাতা : একসময় দাবি ছিল পুনর্বাসন না করে হকারদের উচ্ছেদ করা যাবে না।

সেই দাবি মেনে নিয়ে হকারদের পুনর্বাসনের ব্যবস্থাও করা হচ্ছিল। অথচ হকারদের পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করার নির্দিষ্ট জায়গায় হকারদের পুনর্বাসন না করে বেনিয়াপুকুর থানা স্থানান্তরের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে এবং পরিচয়পত্র ও লাইসেন্সের দাবিতে বিরশূল হাটের হকাররা বেনিয়াপুকুর থানা অভিযান করেন।

সমগ্র এশিয়াতে বিখ্যাত দেড়শ বছরেরও বেশি বয়সের মূলত চর্মজাত দ্রব্যের বাণিজ্য কেন্দ্র সিআইটি রোড পদ্মপুকুর-এর বিরশূল হাট থেকে বুধবার বিকালে স্থানীয় হকাররা বেনিয়াপুকুর থানা অভিযান করেন। রাস্তা এবং ফুটপাত জুড়ে বসার পরিবর্তে বিরশূল হাট-এর হকারদের পুনর্বাসনের ব্যবস্থা করার কথা ছিল কাছেই বিদ্যাসাগর মঞ্চ মার্কেট কমপ্লেক্সে।

কিন্তু কোন অদৃশ্য অঙ্গুলীহেলনে বিদ্যাসাগর মঞ্চে হকারদের পুনর্বাসনের ব্যবস্থা না করে গত ১৩ জুন কলকাতা পুরসভা বিদ্যাসাগর মঞ্চে বেনিয়াপুকুর থানা স্থানান্তরের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে। কলকাতা পুরসভার এমন সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে এআইসিসিটিইউ অনুমোদিত বিরশূল হাট লেদার হকার্স ইউনিয়ন মিছিল করে বেনিয়াপুকুর থানা অভিযান করে স্মারকলিপি পেশ করতে যায়। বেনিয়াপুকুর থানার ওসি স্মারকলিপি গ্রহণ করেন এবং হকারদের দাবিগুলির প্রতি সহানুভূতিশীল হয়ে সুবিবেচনা করার প্রতিশ্রুতি দেন। ইউনিয়ন ও এআইসিসিটিইউ-এর রাজ্য নেতৃত্ব অশোক সেনগুপ্ত, মহঃ সাহবুদ্দিন, মহঃ রুসতম, মহঃ কলিম, মহঃ জাফর, মহঃ সামসের, মহঃ সেলিম, দিবাকর ভট্টাচার্য্য, প্রবীর দাস, তরুন সরকার প্রমুখ অভিযানে নেতৃত্ব দেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here