ব্যাগ ভর্তি টাকা পেয়ে ফেরত দিলেন সম্রাট

0
79

নিজস্ব প্রতিনিধি :”কথায় আছে রাখে হরি মারে কে”….. প্রদ্যুৎ গুপ্ত স্ত্রীর চিকিৎসার জন্য তার বন্ধু বান্ধবদের কাছ থেকে টাকা ধার করে বাড়ি ফিরছিলেন।

মানসিক অশান্তির মধ্যে তার টাকা ভর্তি ব্যাগ খোয়া যায়, টাকা ছাড়াও স্ত্রীর চিকিৎসার কাগজপত্র, ব্যাঙ্কের পাসবই,প্যানকার্ড, বন্ধুদের দেওয়া সই করা ব্লাঙ্ক চেকও ছিল ওই ব্যাগটিতে। খোয়া যাওয়া ব্যাগটি না পেয়ে দিশাহীন অবস্থায় বর্ধমান থানায় জিডি করেন।

প্রদেশ তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক সম্রাট তপাদার আজ দুপুরে বর্ধমান সর্বমঙ্গলা মায়ের কাছে পুজো দিতে যাওয়ার পথে বর্ধমান দূর্গাপুর রোডের ধারে ব্যাগটিকে দেখতে পান। উনি তৎক্ষণাৎ তার দেহরক্ষী ও গাড়ির চালকে ব্যাগটির ভেতরে কি আছেন দেখতে বলেন – তারা সেই ব্যাগটিকে সাবধানতার সাথে খুলে দেখেন যে ব্যাগ ভর্তি টাকা ও কিছু জরুরি কাগজপত্র আছে। তৎক্ষনাৎ সম্রাট ব্যাগটি গাড়িতে তুলে নিয়ে পুলিশের সাথে যোগাযোগ করেন এবং বর্ধমান সদর থানায় বর্ধমানের কাউন্সিলর বলাই মুখার্জীকে সাথে নিয়ে উপস্থিত হন।

বর্ধমান থানার পুলিশ সম্রাটের ব্যাগটিকে দেখে জনৈক প্রদ্যুৎ গুপ্তকে ডেকে পাঠান। খোয়া যাওয়া ব্যাগটি ফেরত পেয়ে প্রদ্যুতবাবু আবেগ প্রনোদিত হয়ে সম্রাটের পা ধরে কেঁদে ফেলেন।

প্রদ্যুৎ বাবু বলেন এই টাকাটা না পেলে স্ত্রীর চিকিৎসা করাতে পারতাম না। তার স্ত্রীর দুটো কিডনিই খারাপ। তার কান্নায় থানার মধ্যেই সম্রাটও আবেগপ্রবণ হয়ে ওঠে এবং সম্রাট বলেন আমরা যারা অভিষেক ব্যানার্জির নেতৃত্বে এবং মমতা ব্যানার্জির দল করি তাদের কাছে সততা ও সমাজসেবা করে মানুষের পাশে থাকাটাই মূল লক্ষ্য।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here