নিজস্ব প্রতিনিধি :আজ যেভাবে উগ্র মৌলবাদী সংগঠনের চাপের কাছে নতিস্বীকার করে রাজস্থানের আজমীর শহরে স্বনামধন্য অভিনেতা নাসিরুদ্দিন শাহের অনুষ্ঠান বাতিল করা হয়েছে, তা সংস্কৃতিজগতের পক্ষে নিদারুণ উদ্বেগের বিষয়।

শনিবার এক বিবৃতিতে তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেছেন রাজ্যের বুদ্ধিজীবী, বিশিষ্ট নাগরিকেরা।
অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, সব্যসাচী চক্রবর্তী, নাট্য সমালোচক শমীক বন্দ্যোপাধ্যায়, পরিচালক কমলেশ্বর মুখার্জি, অনীক দত্ত সহ বুদ্ধিজীবীদের প্রকাশিত বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ৬৮ বছরের অভিনেতা নাসিরুদ্দিন যে স্কুলে পড়েছিলেন, সেই সেন্ট আনসেলম সিনিয়র সেকেন্ডারি স্কুলে শুক্রবার সাহিত্য উৎসবের সূচনা হওয়ার কথা ছিল।

উৎসবের শুরুতে মূল ভাষণ দেওয়ার কথা ছিল নাসিরুদ্দিনের। কয়েকটি হিন্দুত্ববাদী সংগঠন ভয় দেখিয়ে সেই অনুষ্ঠান পন্ড করেছে।
বিবৃতিতে বিশিষ্টজনেরা বলেছেন, ‘গত শতাব্দীর সত্তরের দশকের মাঝামাঝি সময় থেকে ভারতের অভিনয়জগতে স্বতন্ত্র মর্যাদায় মন্ডিত এই বর্ষীয়ান শিল্পীকে আজ যেভাবে সাম্প্রদায়িক জিগির তুলে অপমান ও হেনস্থা করা হচ্ছে তা আমাদের দেশের সৃজনের ধারার সঙ্গে যুক্ত সকলের পক্ষে কলঙ্কজনক। বিভেদ ও অশান্তির বিরুদ্ধে সমাজজীবনে সুস্থতা ও প্রগতির স্বার্থে নাসিরুদ্দিনের বলিষ্ঠ কণ্ঠ বারবার দেশের মানুষকে উজ্জীবিত করেছে।

আজ যারা তাঁর বিরুদ্ধে কুৎসিত ব্যক্তিআক্রমণ করছে তাদের লক্ষ্য ধর্মের নামে রাজনীতি করে নিজেদের স্বার্থসিদ্ধি। দেশটাকে বিভেদ আর দাঙ্গার অশান্তিতে জ্বালিয়ে পুড়িয়ে এরা দেশের শত্রুদের হাত শক্ত করতে চায়। আধুনিক ধর্মনিরপেক্ষ ভারতবর্ষের ঐক্য ও সংহতিকে যারা সুদৃঢ় ও অব্যাহত রাখতে চান তাঁদের প্রত্যেকের অবিলম্বে এই কদর্যতার প্রতিবাদে সোচ্চার হওয়া প্রয়োজন।

আমরা দ্যর্থহীন ভাষায় আমাদের প্রিয় সুহৃদের অবমাননার ধিক্কার জানাচ্ছি’।

বিবৃতিতে সাক্ষর করেছেন অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, সব্যসাচী চক্রবর্তী, নাট্য সমালোচক শমীক বন্দ্যোপাধ্যায়, পরিচালক কমলেশ্বর মুখার্জি, অনীক দত্ত, অভিনেতা পরাণ বন্দ্যোপাধ্যায়, নাট্য ব্যক্তিত্ব কৌশিক সেন, মেঘনাদ ভট্টাচার্য, অরুন মুখোপাধ্যায়, অশোক মুখোপাধ্যায়, নাট্যকার চন্দন সেন, আইনজীবী বিকাশ ভট্টচার্য, অভিনেতা চন্দন সেন, বাদশা মৈত্র, দেবদূত ঘোষ, বিমল চক্রবর্তী, সীমা মুখোপাধ্যায়, অসিত বসু, কুন্তল মুখোপাধ্যায়, শুভেন্দু মাইতি, সৌরভ পালধী, তূর্ণা দাশ, সংগ্রামজিৎ সেনগুপ্ত, দিলীপ চক্রবর্তী, ভদ্রা বসু ও মন্দাক্রান্তা সেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here