জনগণের স্বাধীনতার জয়গান গাওয়া হয় গণতন্ত্রে

0
66

আজ “Bengalwatch”
দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে প্রদেশ তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক সম্রাট তপাদার বলেন জনগণের স্বাধীনতার জয়গান গাওয়া হয় গণতন্ত্রে। গণতন্ত্রে মানুষ স্বাধীনভাবে শ্বাস নিয়ে বাঁচতে পারে। জনগণ ব্যাপক ক্ষমতা ভোগ করে বলেই আবার স্বৈরাচারী/স্বেচ্ছাচারী শাসক আবার ভয় পায় এই গণতন্ত্রকে।

শাসন ক্ষমতাকে কুক্ষিগত করার নেশায় জনগণের দ্বারা নির্বাচিত সরকার, যা জনগণের হয়ে কথা বলার উদ্দেশ্যেই গঠিত, সেই সরকার নিজেকে ‘শাসক’ ভাবতে শুরু করে।

বিশ্বের এক মহান গণতান্ত্রিক দেশ হলো আমাদের এই ভারতবর্ষ। ব্রিটিশ শাসনের নাগপাশ থেকে মুক্তি পেয়ে জনগনের মুক্তিকামি মানসিকতাকে সন্মান জানিয়ে সারা বিশ্বে সে গণতন্ত্রের ধ্বজা উড়িয়েছে। কিন্তু, আমাদের সেই দেশ আজ এক অদ্ভুত পরিস্থিতির মুখোমুখি আর তা হলো গণতন্ত্রের মূল ভিত্তি ব্যক্তিস্বাধীনতায় সরকার (না শাসক?) -এর হস্তক্ষেপ। গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে নির্বাচিত হয়ে আসা কেন্দ্রের বিজেপি সরকার আজ গণতান্ত্রিক অধিকারকেই লঙ্ঘন করছে! কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের নির্দেশে দেশের ১০ টি গোয়েন্দা সংস্থাকে যে কোনও নাগরিকের কম্পিউটার, মোবাইল ফোন, ল্যাপটপে তল্লাশি চালানোর অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

অর্থাৎ, তারা ইচ্ছা করলেই যখন তখন এই কাজ করতে পারে। এই কাজ নাগরিকের ব্যক্তি স্বাধীনতাকে সন্মান জানায় না যা সুস্থ গণতন্ত্রের পক্ষে বড্ড বেমানান। এতে করে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে দেশের সকল নাগরিককে একটা সন্দেহের চোখে দেখা হচ্ছে – এমন ধারনা হওয়াটা একেবারে অমূলক নয়। কিন্তু, এমনটা তো হওয়ার নয় সুস্থ গণতন্ত্রে! সরকার যদি তার কাজ রাজধর্ম মেনে সঠিকভাবে পালন করে, যদি সেই সরকারের জনভিত্তি থেকে থাকে, তাহলে নাগরিকদের প্রতি অবিশ্বাসের এমন পরিস্থিতি সরকারের মনে কেন তৈরী হবে? দেশের নাগরিকদের প্রতি দেশের নিরাপত্তার জুজু দেখিয়ে নাগরিকদের উপর নজরদারি চালানোর এই কৌশলের বিরুদ্ধে সমাজের গণতন্ত্রপ্রিয় সকল মানুষকেই এগিয়ে আসতে হবে। পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মাননীয়া মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জনগণের বিপুল ভালোবাসা পেয়ে রাজ্যে মা-মাটি-মানুষ এর সরকার পরিচালনা করছেন।

তিনি, সাধারন মানুষের পালস ঠিক বোঝেন, আর বোঝেন বলেই কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের ব্যক্তিস্বাধীনতা লঙ্ঘনকারী এই নির্দেশের তীব্র প্রতিবাদ করেছেন। জনগনের দুঃখ-কষ্টের বিষয়গুলি তাকে ভাবায়, বিচলিত করে। তিনি যে তিনি জননেত্রী… আর সেই কারনে রাজ্যের আপামর সাধারন মানুষ তার মধ্যে আশা দেখেন, তাকে ঘিরে উন্নয়নের স্বপ্ন দেখেন।
—————————————-
…………………………………….

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here