শ্যামলেন্দু মিত্র # মধ্যপ্রদেশের ব্যপম কেলেঙ্কারি নিয়ে দেশব্যাপী সোরগোল হয়েছিল। অনেকে গ্রেফতার হয়েছিল। অনেকে ইস্তফা দিয়েছিল সরকারি পদ থেকে। আত্মহত্যা ও অপমৃত্যুও হয়।

# বাংলায় শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে যা হচ্ছে তা ব্যপম কেলেঙ্কারিকে হার মানাচ্ছে।

# ২০১১ সালে নতুন সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকে আজ পর্যন্ত একাধিক স্কুল সার্ভিস কমিশন চেয়ারম্যান বদল হয়েছে। থামেনি কেলেঙ্কারি।

# নিয়ম হল, স্কুল শিক্ষক নিয়োগ হবে প্রশিক্ষনপ্রাপ্তদের থেকে।

টেট পরীক্ষায় যারা পাশ করবে ও প্রশিক্ষন প্রাপ্তরাই শিক্ষকের চাকরি পাবে

# কিন্তু দেখা যাচ্ছে,প্রশিক্ষন ছাড়াই নিয়োগ হচ্ছে।

# টেটের পরীক্ষার মেরিট লিস্ট প্রকাশ করা হচ্ছে না।

# এই নিয়ে মামলার পর মামলা।

আদালতের নির্দেশ পেয়েও অনেকে সুবিচার পাচ্ছে না।

# যে কোনও প্রতিযোগিতার পরীক্ষার মেরিট লিস্ট অর্থাৎ মেধা তালিকা প্রকাশ বাধ্যতামূলক।

ইঞ্জিনিয়ারিং বা মেডিকেলের রাজ্যভিত্তিক বা দেশভিত্তিক  জয়েন্টে লাখ লাখ ছেলে মেয়ে পরীক্ষা দেয়।

সেখানে প্রত্যেকের নাম ও প্রাপ্ত নম্বর দিয়ে মেধা তালিকা প্রকাশ হয়।

যারা শূন্য পায় তাদেরও  নাম ও প্রাপ্ত নম্বর মেধা তালিকায় স্থান পায়।

# ব্যতিক্রম বাংলায় শিক্ষক নিয়োগের মেধা তালিকা প্রকাশ না হওয়া।

তার ফলে, কেলেঙ্কারি হচ্ছে নিয়োগ নিয়ে। গোটা নিয়োগ প্রক্রিয়া চলছে গোপনে।

স্বচ্ছতার ধারে কাছে নেই।

# সুপ্রিম কোর্টের আদেশে ২০১৬ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর সিঙ্গুরে অধিকৃত জমি চাষীদের হাতে তুলে দেওয়ার অনুষ্ঠান মঞ্চ থেকে মুখ্যমন্ত্রী  মমতা  ব্যানার্জি ঘোষনা করেছিলেন, সব জট কাটিয়ে এক মাসের মধ্যে সব শূন্য পদে শিক্ষক নিয়োগ করা হবে। তখন শূন্য পদ ছিল প্রায় লাখের কাছে।

# এর পর কেটে গেছে অনেক দিন।

প্রাইমারিতে কিছু নিয়োগ হলেও,আপার প্রাইমারি,সেকেন্ডারি ও হায়ার সেকেন্ডারিতে নিয়োগ হয়নি।

রাজ্য সরকারের মতে,মামলার ফলে নিয়োগ সম্ভব হচ্ছে না।

# কেন মামলা হচ্ছে?

রাজ্য সরকারের কাজে অস্বচ্ছতার অভিযোগ তুলে চাকরি প্রার্থিরা মামলা করছেন।

# মূল অস্বচ্ছতা হলো,মেধা তালিকা প্রকাশ না করা।

# এসএমএস করে ডেকে পাঠিয়ে নিয়োগ পত্র দেওয়ার অভিযোগ।

#  শুক্রবার ২১ জুন কলকাতা হাইকোর্ট  আপার প্রাইমারির ১০০ জন প্রার্থীকে ডকুমেন্ট ভেরিফিকেশনে ডাকার জন্য স্কুল সার্ভিস কমিশনকে নির্দেশ দিয়েছে।

# ১০০ জন প্রার্থী হাইকোর্টকে জানিয়েছিল, তারা প্রত্যেকে টেট পাশ ও প্রশিক্ষনপ্রাপ্ত। তাদের না ডেকে প্রশিক্ষনহীন ও অযোগ্যদের ডাকা হয়েছে।

# এই ধরনের অভিযোগ হাইকোর্টে একাধিকবার হয়েছে।

# কেন মেধা তালিকা প্রকাশ করা হবে না?

# মুখ্যমন্ত্রী কাটমানি নিয়ে সরব হয়েছেন।

তাকে সকলে ধন্যবাদ জানাচ্ছেন।

# স্কুল শিক্ষক  নিয়োগ নিয়ে যে কেলেঙ্কারি হয়েছে তা কাটমানির থেকে কিছু অংশে কম নয়।

এই কেলেঙ্কারির গুরুত্ব অনেক।

কারণ এর ফলে গোটা স্কুল শিক্ষা ব্যবস্থা কলঙ্কিত হয়েছে।

# তাই মমতা ব্যানার্জির কাছে আমার অনুরোধ, শিক্ষক  নিয়োগ নিয়ে উচ্চ পর্যায়ের তদন্ত করান। দেখতে পাবেন,কত সব রাঘব বোয়াল এই কেলেঙ্কারিতে জড়িত।

# লাখ লাখ গরিব ও নিম্নবিত্ত ছেলেমেয়েরা টেটে ভাল ফল করে প্রশিক্ষন নিয়ে চাকরি পাচ্ছে না,অথচ এক শ্রেণির ছেলে মেয়ে অসত উপায়ে চাকরি পাচ্ছে।

# কেন একাধিক স্কুল সার্ভিস কমিশন চেয়ারম্যানকে সরানো হয়েছে,খবর নিন।

# ২০১১ সাল থেকে মোট কতজন টেটে পাশ করেছে তার তালিকা প্রকাশ হোক।

# মোট নিয়োগ যাদের করা হয়েছে তাদের যোগ্যতা কী কী, তা প্রকাশ করা হোক।

# প্রশিক্ষনপ্রাপ্ত ও টেট পাশ করা চাকুরি প্রার্থীদের তালিকা প্রকাশ করা হোক।

# টেটের মেধা তালিকা প্রকাশ করা হোক।

# তাহলে দুধ কা দুধ, পানি কা পানি ক্লিয়ার হয়ে যাবে।

# মাননীয়া, মুখ্যমন্ত্রী,আপনি যখন  কাটমানি ফেরত ইস্যুতে নিজের দলের লোকজনকে কাঠগড়ায় দাড় করিয়েছেন,এবার সাহস করে,শিক্ষক নিয়োগ কেলেঙ্কারি উন্মোচন করুন।

দেখতে পাবেন অনেকের মুখ আর মুখোশ।

#  আপনি এই কাজ না করলে,এর বিচার না হলে,লাখ লাখ বেকার যোগ্যতা সম্পন্ন ছেলেমেয়ের অভিশাপ আপনাকে কুড়োতেই হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here