ছবিটি প্রতীকী

বেঙ্গলওয়াচডেস্কয়াবহ ভূমিকম্পে বিপর্যস্ত জাপান। কেঁপে উঠলো জাপানের একাধিক শহর। ভূমিকম্পের থেকেও মারাত্মক হল আফটার শক। রিখটার স্কেল বলছে, মূল ভূমিকম্পের মাত্রা ছিল ৭.১। কিন্তু আফটার শকের মাত্রা ছিল ৭.৩। বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত পাওয়া খবর অনুযায়ী, চারজনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন শতাধিক বাসিন্দা। সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত রাজধানী টোকিও, ফুকুশিমা, মিয়াগি এলাকা। সংবাদ সংস্থার খবর অনুসারে জানা গিয়েছে কম্পনের তীব্রতা এতটাই বেশি ছিল যে লাইনচ্যুত হয় বুলেট ট্রেনও। ৪ ঘন্টারও বেশি সময় ধরে ট্রেনের ভিতরেই আটকে ছিলেন প্রায় ৭৫ জন যাত্রী। এদিকে সরকারী হিসেবে জানান হয়েছে কম্পনের তীব্রতায় নষ্ট হয়েছে ৭০ হাজারের বেশি বাড়ি। বিদ্যুৎহীন প্রায় ২০ লক্ষ বসত বাড়ি। সবচেয়ে

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

খারাপ অবস্থা রাজধানী টোকিও’র। জারি রয়েছে সুনামির সতর্কতাও। প্রায় ১ মিটার উঁচু ঢেউ আছড়ে পড়ছে সৈকত এলাকায়। তাও দেশের উত্তর পশিচম প্রান্তের ক্ষয়ক্ষ়তির পরিমাণ এখনও জানা যায়নি। জানার চেষ্টা চলছে। তবে শুধু জাপান নয়, সুনামির আশঙ্কা রয়েছে ক্যালিফোর্নিয়া, ওয়াশিংটন, আলাস্কা-সহ একাধিক এলাকায়। একই সঙ্গে বন্ধ হয়ে গিয়েছে একাধিক এক্সপ্রেসওয়ে। ফলে আটকে যান চলাচল। বুধবার রাত ৮টা নাগাদ আচমকা কেঁপে ওঠে রাজধানী টোকিও সহ পূর্ব জাপানের বিস্তীর্ণ এলাকা। এর পরই জাপানের উত্তর-পূর্ব সমুদ্র সৈকতে আছড়ে পড়তে পারে সুনামি, এমন আশঙ্কায় সতর্কতা জারি করে জাপান মেটারোলজিকাল এজেন্সি। প্রথম ধাক্কার রেশ কাটিয়ে ওঠার আগেই পর পর বেশ কয়েকবার কম্পন অনুভূত হয় জাপানে।#

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here