সূর্য চট্টোপাধ্যায়, নদীয়া: বছর কুড়ির গৃহবধূকে প্রথমে গলা টিপে তারপর মৃত্যু সুনিশ্চিত করতে এবং ঘটনাটিকে আত্মহত্যা দেখানোর উদ্দেশ্যে জোর করে মুখে বিষ ঢেলে খুন করার অভিযোগ উঠল গৃহবধূর স্বামী, শ্বশুর এবং দুই দেওরের বিরুদ্ধে।

মৃত গৃহবধূর নাম মৌসুমী ঘোষ। ঘটনাটি ঘটেছে হোগলবেড়িয়া থানার অন্তর্গত দেওয়ানপাড়ায়। এবিষয়ে গৃহবধূর দাদা প্রসেনজিৎ ঘোষ জানান যে তাঁদের বাড়ি অর্থাৎ গৃহবধূর বাপের বাড়ি থানারপাড়া থানার অন্তর্গত ধড়দাহে। গত ২ বছর আগে তাঁর বোন মৌসুমীর সাথে বিয়ে হয় দেওয়ানপাড়ার নিতাই ঘোষের। এখনও পর্যন্ত কোনো সন্তান হয় নি তাঁদের।

প্রসেনজিৎ-এর অভিযোগ বিয়ের পর থেকেই নানা অছিলায় বোনের স্বামী নিতাই ও তাঁর বাড়ির লোকজন তাঁর বোনের কাছে টাকা দাবি করতো। না দিতে পারলেই তাঁর বোনের ওপর শারীরিক ও মানসিক অত্যাচার করা হত।

গতকাল তাঁর বোনকে গলা টিপে ও মুখে বিষ ঢেলে খুন-ই করে ফেলল শ্বশুরবাড়ির লোকেরা। করিমপুর হাসপাতালে তাঁর বোনকে ফেলে রেখে শ্বশুরবাড়ির লোকজন পালিয়ে যায়।

এই ঘটনায় হোগলবেড়িয়া থানার পুলিশ মৃতার স্বামী নিতাই ঘোষকে গ্রেফতার করেছে। শ্বশুর ও দুই দেওর এখনো অধরা। খুনের তদন্ত চালাচ্ছে হোগলবেড়িয়া থানার পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here