ব্রিগেডের প্রস্তুতির সভা ঘিরে তৃণমূলের গোষ্ঠী দ্বন্দে উত্তপ্ত হাড়োয়া

0
42

অর্ণব মৈত্রঃ আগামী ১৯ জানুয়ারী মুখ্যমন্ত্রী নির্দেশে যে ব্রিগেড সভার ডাক দিয়েছে, সেই সভার প্রস্তুতি সভা চলছে রাজ্য জুড়ে।

সারা রাজ্যের পাশাপাশি আগামী ২০ ডিসেম্বর হাড়োয়ার মাজমপুর কাঠ মিলের মাঠে এক প্রস্তুতি সভার আয়জন করেন হাড়োয়া পঞ্চায়েত সমিতির প্রাক্তন সভাপতি আব্দুল খালেক মোল্লা।

২০ ডিসেম্বর হাড়োয়ার তৃণমূল নেতা তথা প্রাক্তন সভাপতি আব্দুল খালেক মোল্লার ডাকে প্রায় পাঁচ হাজার তৃণমূল নেতা, কর্মী ও সমর্থকেরা অংশ গ্রহন করেছিলেন সেই সভায়।

এই সভা থেকে আগামী দিনে মুখ্যমন্ত্রী হাত আরো শক্ত করার জন্য আগামী ১৯ জানুয়ারী মুখ্যমন্ত্রী ব্রিগেডে সবাই কে যাওয়ার অনুরোধ জানান হাড়োয়া পঞ্চায়েত সমিতির প্রাক্তন সভাপতি আব্দুল খালেক মোল্লা। এই দিনের এই সভায় উপচে পড়া ভীড় সামলাতে পুলিশ দের ও বেশ সমস্যায় পড়তে হয়।

প্রস্তুতি সভায় উপচে পড়া ভীড় দেখা ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে হাড়োয়ার অপর তৃণমূল নেতা তথা মিনাখাঁ বিধানসভার বিধায়ক এর স্বামী মৃত্যুঞ্জয় মণ্ডলের গোষ্ঠী।

তাই প্রাক্তন সভাপতি র গোষ্ঠীর দলের কর্মী দের চিন্হিত করে তাদের বেধড়ক মারধোর করে মৃত্যুঞ্জয় মণ্ডলের গোষ্ঠী লোকেরা। এমন কি বেশ কিছু দোকান ভাঙচুর করা হয় বলে অভিযোগ উঠেছে খালেক গোষ্ঠীর পক্ষ থেকে।

কুড়ি তারিখ সভা হয়ে যাওয়ার পর ২১ তারিখ থেকে দফায় দফায় বোমা ও গুলি চালাতে থাকে মৃত্যুঞ্জয় মণ্ডলের গোষ্ঠী লোকেরা। এমন টাই দাবী খালেক গোষ্ঠীর লোকেদের। পরিস্থিতি সামলাতে হাড়োয়া থানার পক্ষ থেকে এলাকায় নামানো হয় রেফ ও কমব্যাক্ট ফোর্স। এই ঘটনার মধ্যে আজ শালিপুর গ্রামে খালেক মোল্লার গোষ্ঠীর লোকেদের বেধড়ক মারধোর করে ও তাদের দোকান ভাঙচুর করে মৃত্যুঞ্জয় মণ্ডলের গোষ্ঠী লোকেরা।

ঘটনায় রমজাত আলি, জামাদ আলি মোল্লা সহ সহ মোট তিন জন কে হাড়োয়া হাসপাতালে নিয়ে গেলেও এক জনের অবস্থা আশঙ্কা জনক হওয়ায় তাকে বারাসাত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তবে এই বিশয়ে মৃত্যুঞ্জয় মণ্ডলের কাছে থেকে কোন প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায় নি। এমন কি তাকে ফোনেও পাওয়া যায়নি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here