ধর্মের ভেদাভেদ ভুলে সম্প্রীতিই ঐতিহ্য সোনামুখীর সত্যকালীর

0
65

সোনামুখীর এক অন্যতম জনপ্রিয় এবং জাঁকজমকপূর্ণ উৎসব কালী পূজো। কেউ কেউ সোনামুখী কে কালীর শহর ও বলে থাকেন। সোনামুখীর বিভিন্ন কালী পুজো গুলির ইতিহাস অতি সুপ্রাচীন।

 

 

আর এই ঐতিহ্যকে বহন করে নিয়ে চলেছে সোনামুখীর কালী পুজা উৎসব। কোথাও বর্গী আক্রমণের সময়কালের ডাকাতদের কালী তো কোথাও পঞ্চমুন্ডির আসন।তবে এসবের সাথে জড়িয়ে আছে সোনামুখীর সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির ঐতিহ্য। তার অন্যতম প্রকৃষ্ট উদাহরণ হল সোনামুখীর সত্যকালী। জাতি বর্ণের সীমা ছাড়িয়ে সোনামুখীর কালী পূজা যেন মানব বন্ধনের উৎসব।

 

 

সত্যকালী মন্দিরটি সোনামুখীর চেল মোড়ের কাছে সত্যপীর তলায়। স্থানীয় বাসিন্দা তথা পূজো কমিটির সদস্য সিদ্দিক সেখ, বাবলু চেল,গনেশ দত্ত এবং তাজু সেখরা জানান এই এলাকায় হিন্দু মুসলিম সহাবস্থান বহু প্রাচীন।

এখানে বহু কাল আগে থেকেই একটি সত্য পীরের থান আছে। আজ থেকে প্রায় আশি নব্বই বছর আগে সোনামুখীর প্রাক্তন চেয়ারম্যান নারান গোপাল চেট্যার্জ্জী যুবক বয়সে একটি কালী পুজোর প্রচলন করেন।

সত্য পীরের থানের গায়েই এই পূজো প্রচলন হয় বলে নাম হয় সত্য কালী। তখন থেকেই মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষেরা ও সমান ভাবে এই পূজো কমিটিতে অংশগ্রহণ করে থাকেন। হাতে হাত মিলিয়ে করেন আয়োজন।

স্থানীয় বাসিন্দারা আরো বলেন আমরা সবাই একে অন্যের উৎসবে যোগ দিই। তা ইদ হোক বা কালী পুজো।যাই ঘটুক না কেন আমরা একসাথেই আনন্দ করবো।

সোনামুখীর সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির ঐতিহ্য সম্পর্কে বলতে গিয়ে সোনামুখীর চেয়ারম্যান সুরজিত মুখার্জি যথার্থই বলেন ধর্ম যার যার উৎসব সবার। তিনি আরো জানান সোনামুখীর সম্প্রীতির ঐতিহ্য বহু প্রাচীন।

এখানে সব ধর্মের উৎসবেই সকলে একসাথে আনন্দ করেন। প্রশাসন সব রকমের ব্যবস্থা এখানে নেয় যাতে মানুষ সোনামুখীর কালী পুজা সুষ্ঠু ভাবে উপভোগ করতে পারেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here