নিজস্ব প্রতিনিধি:  ‘স্বপ্নাদেশ’ পেয়ে ছোট ভাইকে কুপিয়ে খুন করল দাদা। ভাইকে বাঁচাতে গিয়ে আহত হয়েছেন আর এক দাদা। শনিবার ভোরে নৃশংস ঘটনাটি ঘটেছে বীরভূমের নলহাটিতে। মৃতের নাম রোহন বসির (১৯)। ঘটনার পর থেকে পলাতক অভিযুক্ত। পরে নলহাটি থানায় গিয়ে আত্মসমর্পণ করে সে।

বীরভূমের নলহাটি পুরসভার ১২ নম্বর ওয়ার্ডের নজরুল পল্লির বাসিন্দা দীর্ঘদিন ধরে মা ও তিন দাদার সঙ্গে ওই বাড়িতেই থাকত মৃত রোহন। জানা গিয়েছে, বছর চারেক আগে আত্মহত্যা করে ওই যুবকের মেজো দাদা। এরপর থেকে দোতলার একটি ঘরে থাকতেন মৃতের বড় দাদা ও তাঁর স্ত্রী। পাশের ঘরেই সেজো দাদা এনজামান বসিরের সঙ্গে থাকত রোহন।

মৃতের পরিবার সূত্রে খবর, সব সময় নেশায় বুঁদ হয়ে থাকত রোহন। শনিবার ভোরে হঠাৎই পাশের ঘর থেকে রোহনের চিৎকার শুনতে পায় তার বড় দাদা ওয়াসিম বসির। পাশের ঘরে গিয়ে সে দেখে ধারাল অস্ত্র দিয়ে রোহনকে কোপাচ্ছে এনজামান।

সূত্রের খবর, অস্ত্রের আঘাতে রোহনের দেহ থেকে মাথা আলাদা করে দেয় অভিযুক্ত। ডান হাতের কবজি কেটে নেওয়া হয়েছে বলেও অভিযোগ। ছোট ভাইকে বাঁচাতে গিয়ে আক্রান্ত হন বড় দাদাও।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here