স্কুল চত্বরে গুলি কাণ্ডের ঘটনায় একজনকে গ্রেপ্তার করল পুলিশ

0
34

নিজস্ব প্রতিনিধি : ধৃতের নাম আলিমুল হক। তাঁর বাড়ী দিনহাটার গীতালদহ এলাকায়। গীতালদহ ১ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান আবুয়াল আজাদের ডান হাত বলে পরিচিত আলিমুল হকের বিরুদ্ধে গতকালকের গন্ডগোল সহ তিনটি ঘটনায় অভিযোগ রয়েছে।

কোচবিহার জেলা পুলিশ সুপার ভোলানাথ পাণ্ডে এখবর জানিয়ে বলেন, “গতকাল দিনহাটার গীতালদহে স্কুলের ভিতরে কোন ঘটনা ঘটে নি। যা হয়েছে বাইরে। আমরা ওই ঘটনায় একজনকে গ্রেপ্তার করেছি।

জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আজ তাঁকে আদালতে তুলে নিজেদের হেফাজতে নেওয়া হবে। ওই এলাকায় পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রণে।”

তৃণমূল কংগ্রেসের দিনহাটা ১ নম্বর ব্লক সভাপতি নূর আলম হোসেন বলেন, “আলিমুল এলাকায় গরু ও নিষিদ্ধ কফ সিরাপ ফেন্সিডিলের সীমান্ত চোরাচালানের কাজের সাথে যুক্ত। আমরা তাঁকে এলাকার প্রধান আবুয়াল আজাদের ডান হাত হিসেবে চিনি।

আলিমুল সহ ওই ঘটনায় আরও যে সব দুষ্কৃতির নাম রয়েছে, তাঁদের গ্রেপ্তার করে আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধারের দাবী করছি আমরা।” গীতালদহ ১ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান আবুয়াল আজাদ বলেন, “ আলিমুল আমার পরিচিত।

ডান হাত, বাম হাত বলে জানি না। আমি সকলের সাথে ভাই বন্ধু হিসেবে দেখে রাজনীতি করি। কেউ একজন সীমান্ত চোরাকারবারি বলে দিলেই হবে না। প্রমান লাগবে। আসলে যুব তৃণমূল করি বলে আমার বিরুদ্ধে চক্রান্ত হচ্ছে। মিথ্যে মামলা করা হচ্ছে।”
গতকাল দিনহাটার গীতালদহে হরিরহাট চাউলানদহতে একটি নার্সারি স্কুল চত্বরে গুলি চালিয়ে বাঁশ লাঠি দিয়ে পিটিয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের তিন কর্মীর উপড়ে হামলার ঘটনা ঘটে। ওই ঘটনায় একজন শিক্ষক সহ দুজন গুরুতর ভাবে আহত হয়। তাঁদের একজনকে দিনহাটা মহকুমা হাসপাতালে ও অন্যজনকে কোচবিহারে একটি বে-সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ওই ঘটনায় নিয়ে গীতালদহ গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান আবুয়াল আজাদ ও তাঁর অনুগামীদের বিরুদ্ধে অভিযোগ ওঠে। ঘটনার খবর পেয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের কোচবিহার জেলা সভাপতি তথা উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ দিনহাটায় ছুটে যান। স্থানীয় বাসিন্দারা ঘটনাস্থলে রাস্তা অবরোধ করে অপারাধীদের গ্রেপ্তারের দাবী জানায়। পুলিশ অভিযোগ পেয়ে ঘটনার দিন রাতেই আলিমুল হককে গ্রেপ্তার করে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here