নিজস্ব সংবাদাতা, মালদা: এক যুবককে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপানোর অভিযোগ উঠল সিভিক ভলেন্টিয়ারের বিরুদ্ধে। জমি থেকে মটরসুটি তুলে খাওয়ার অভিযোগে, বাম  হাতে একাধিক আঘাত পেয়ে গুরুতর জখম অবস্থায় ওই যুবক বর্তমানে মালদা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন। শনিবার বিকেলে বৈষ্ণবনগর থানার ভগবানপুর এলাকায় ঘটনাটি ঘটে।

অভিযুক্ত সিভিক ভলেন্টিয়ারের বিরুদ্ধে বৈষ্ণবনগর থানায় অভিযোগ জানালে তদন্তে নামে পুলিশ। পরিবার ও পুলিশসুত্রে জানা গিয়েছে জখম যুবককের নাম কাশিম শেখ(২০)। বাবা মানিক শেখ। তারা পেশায় কৃষক। বাড়ি বৈষ্ণবনগর থানার ভগবানপুর গ্রামে। জানা গিয়েছে জমিতে তারা মটরসুটি চাষ করেছে। প্রতিদিনের মত শনিবার বিকেলেও  মাঠে মটরসুটি পাহাড়া দিচ্ছিল কাশিম।

তাদের জমির পাশেই রয়েছে পেশায় সিভিক ভলেন্টিয়ার এনামূল শেখের জমি। সেও মটরসুটি চাষ করেছে। এদিন বিকেলে এনামূল জমিতে আসে। সেই সময় সেখানে ছিল কাশিম। এনামূল অভিযোগ করে কাশিম তার জমির মটরসুটি তুলে খেয়েছে। কিন্তু কাশিমের দাবী, তাদেরও জমিতে মটরসুটি রয়েছে। সে কারো জমির মটরসুটি তোলেনি।

এই নিয়ে দুই জনের বিবাদ বাধে। অভিযোগ সেই সময় অভিযুক্ত এনামূল ধারালো অস্ত্র নিয়ে চড়াও হয় কাশিমের উপর। তাকে একাধিক ধারালো অস্ত্রের কোপে কাশিের বা হাত গুরুতর জখম হয়।পরিবারের লোকেরা তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখান থেকে তাকে মালদা মেডিকেলে পাঠায়। ঘটনায় বৈষ্ণবনগর থানায় অভিযোগ জানালে তদন্তে নামে পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here