উত্তম মঞ্চে অনুষ্ঠিত হয়েগেল”আবৃত্তি শিল্পী সংস্থার”উদ্যোগে শিশু কিশোর আবৃত্তি মেলা

0
99

সম্প্রতি কলকাতার উত্তম মঞ্চে অনুষ্ঠিত হল সারা রাজ্য শিশু-কিশোর আবৃত্তি মেলা ও বাচিক কর্মশালা। তিনদিনের এই অনুষ্ঠানের আয়োজক ছিল “আবৃত্তি শিল্পী সংস্থা”।

অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা হয় ২৫ ডিসেম্বর’২০১৮ হাজরা মোড় থেকে উত্তম মঞ্চ পর্যন্ত পদযাত্রার মধ্যে দিয়ে। প্রদীপ প্রজ্জ্বলন করে কলকাতার উত্তম মঞ্চে অনুষ্ঠানের সূচনা করেন বিশিষ্ট লেখক ও কবি মাননীয় সৈয়দ হাসমত জালাল, যন্ত্রসংগীত শিল্পী মল্লার ঘোষ, মাননীয়া মধুমিতা বসু, সংস্থার প্রাণপুরুষ শ্রী জয়ন্ত ঘোষ প্রমুখ গুণী ব্যক্তিরা।

তিনদিন ব্যাপী এই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেছে সারা রাজ্যের উত্তর থেকে দক্ষিণ সব জেলা থেকে আসা আবৃত্তি সংস্থার কচিকাঁচারা, যা সংখ্যায় প্রায় ছয়শোর(৬০০) বেশী। সঙ্গে ছিলেন অভিভাবক, অভিভাবিকারা, প্রশিক্ষক, প্রশিক্ষিকারাও।

তিনদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন শ্রী উৎপল কুন্ডু , বিজয়লক্ষ্মী বর্মন, শ্রী দেবাশীষ বসু, শ্রী সতীনাথ মুখোপাধ্যায়, শর্মিলা ঘোষ, ড:অমিতাভ ভট্টাচার্য, শ্রী ঋতব্রত ভট্টাচার্য প্রমুখ গুণী ব্যক্তিরা। অসুস্থতার জন্য আসতে পারেননি ড. পবিত্র সরকার, ওঁনার শুভেচ্ছা বার্তা রেকর্ড করে শোনানো হয়।

তিনদিন ব্যাপী এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন আরও অনেক অগ্রজ আবৃত্তি শিল্পী। ২৬ শে ডিসেম্বর ও শেষ দিন ২৭ শে ডিসেম্বর ছিল বাচিক কর্মশালা। কচিকাঁচাদের ভিড় ও উৎসাহ ছিল চোখে পড়ার মতো। তিনদিনই প্রেক্ষাগৃহে ছিল শিল্পপ্রেমী মানুষের ঢল।

আবৃত্তি শিল্পী সংস্থার পক্ষ থেকে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে অংশগ্রহণকারী সমস্ত কচিকাঁচাদের ও তাঁদের অভিভাবক, অভিভাবিকা, প্রশিক্ষক, প্রশিক্ষিকাদের থাকা, খাওয়ার সুবন্দোবস্ত করা হয়। সংস্থার কর্ণধার শ্রী জয়ন্ত ঘোষের কথায়, তিনদিন ব্যাপী আবৃত্তিমেলার মধ্যে দিয়ে আমরা চেয়েছি আগামী দিনে এই কচিকাঁচারা শিল্পমুখী হোক, তারই বীজ বপন করার জন্য এই আয়োজন।

তাঁরা যদি এই অনুষ্ঠানের মধ্যে দিয়ে সামান্য কিছুও শিখতে পারে তবেই আমাদের উদ্দেশ্য সফল হবে। আগামী দিনেও এই আয়োজন আমরা করবো। আমাদের একটাই মন্ত্র “চরৈবেতি, চরৈবেতি।”

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here