Saturday, August 13, 2022
Advertisement

Bollywood:বলিউডের কোন তারকারা আগে ওয়েটার ছিলেন

শাশ্বতী চ্যাটার্জি::বলিউডে এমন অভিনেতারা রয়েছেন যারা চলচ্চিত্র জগতে আসার আগে ওয়েটারের চাকরি করতেন।

 

 

সেইসব অভিনেতাদের সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

অক্ষয় কুমার

অক্ষয় কুমার বলিউডে আসার আগে ব্যাঙ্কক-ভিত্তিক একটি রেস্তোরাঁয় শেফ এবং ওয়েটার হিসেবে কাজ করতেন। তিনি তায়কোয়ান্দোর ব্ল্যাক বেল্ট এবং ব্যাঙ্ককে মার্শাল আর্ট অধ্যয়ন করেছেন। দেশে ফিরে অক্ষয় কুমার মার্শাল আর্টের শিক্ষক হতে চেয়েছিলেন। তবে, ভাগ্য তাঁকে সম্পূর্ণ ভিন্ন দিকে নিয়ে যায় এবং তিনি চলচ্চিত্রে প্রবেশ করেন। এখন তিনি বলিউডের খিলাড়ি কুমার। তাঁর অ্যাকশন এবং কমেডি দর্শকের মন জয় করে নিয়েছে।

বোমান ইরানী

সংগ্রামের আরেক নাম বোমান ইরানি। ইন্ডাস্ট্রিতে বিরতি পাওয়ার আগে তিনি একই সঙ্গে তাজমহল হোটেলে ওয়েটার এবং রুম সার্ভিস অ্যাটেনডেন্ট হিসাবে কাজ করেছিলেন। তিনি তাঁর মাকে মুম্বইয়ে তাঁদের পৈতৃক বেকারির দোকান চালাতেও সাহায্য করেছিলেন।

তিনি একটু লাজুক প্রকৃতির, ডিসলেক্সিক বাচ্চা ছিলেন। সপ্তম শ্রেণী পর্যন্ত তিনি কথা বলতেন না এবং বড় হওয়া তাঁর পক্ষে কখনওই সহজ ছিল না। দশম শ্রেণি পর্যন্ত তাঁর বক্তব্যে ত্রুটি থাকতো। বোমান ইরানীর জন্মের তিন মাস আগে তাঁর বাবা মারা যান। স্কুলে পড়ার সময়, তিনি প্রতিদিন স্কুল ছুটির পর আলেকজান্ডার সিনেমায় ঘন ঘন সিনেমা দেখতেন। তাঁর মা তাঁকে সিনেমা দেখতে, সিনেমাটোগ্রাফি এবং শিল্প পর্যবেক্ষণ করতে উৎসাহিত করেছিলেন।

সূত্র মারফৎ জানা যায়, তিনি তাঁর পরিবারের পাশে দাঁড়ানোর জন্য স্কুল ছেড়ে দিয়েছিলেন।তিনি মুম্বইয়ের তাজমহল প্যালেসে দুই বছরের জন্য ওয়েটার হিসাবে কাজ করেছিলেন। একদিন, দুর্ভাগ্যবশত, তাঁর মা দুর্ঘটনার সম্মুখীন হন। এর পরে, তিনি একাই তাঁর পারিবারিক ব্যবসার দায়িত্ব নেন। ৩২ বছর বয়স পর্যন্ত দক্ষিণ মুম্বইয়ের গ্র্যান্ট রোডে একটি ছোট দোকানে চিপস বিক্রি করেন বোমান ইরানী।

অবশেষে, তাঁর কঠোর পরিশ্রম, দৃঢ়তা এবং তাঁর আবেগের প্রতি দৃঢ়তা প্রতিফলিত হয় যখন তিনি ভারতে বক্সিং বিশ্বকাপের অফিসিয়াল ফোটোগ্রাফার হন। তারপরে তিনি ফোটোগ্রাফিতে একটি গৌরবময় কেরিয়ার গড়ে তোলেন।

বোমান ইরানী থিয়েটারে তাঁর অভিনয় জীবন শুরু করেন এবং ২০০০ সালে চলচ্চিত্র জগতে পা রাখেন। ইরানী ২০০৩ সালে মুক্তি পাওয়া কমেডি সিনেমা ‘মুন্না ভাই এমবিবিএস’-এ তাঁর চরিত্রের জন্য খ্যাতি অর্জন করেন। এরপর তিনি ‘লগে রহো মুন্না ভাই’-এ অভিনয় করেন। যার জন্য তিনি অনেক আইফা পুরস্কারের মনোনয়ন পেয়েছিলেন। আমির খানের বিপরীতে ‘থ্রি ইডিয়টস’-এ তিনি খলনায়কের চরিত্রের জন্য সেরা অভিনেতা হিসাবে ফিল্মফেয়ার পুরস্কার এবং স্টার স্ক্রিন পুরস্কার অর্জন করেন। স্কুল এবং কলেজের দিনগুলিতে সবসময়ই অভিনয়ের প্রতি টান ছিল বোমান ইরানীর। তিনি ১৯৮১ সাল থেকে ১৯৮৩ সাল পর্যন্ত হংসরাজ সিদ্ধিয়া নামে একজন অভিনয় প্রশিক্ষকের অধীনে প্রশিক্ষণ নেন এবং কিছু পেশাদার অভিনয় কৌশলও অনুসরণ করেন।

বর্তমানে বোমান ইরানি একাধারে একজন জনপ্রিয় ভারতীয় চলচ্চিত্র অভিনেতা, কন্ঠ শিল্পী এবং ফোটোগ্রাফার।

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Stay Connected

0FansLike
3,432FollowersFollow
0SubscribersSubscribe
- Advertisement -spot_img

Latest Articles