বিজেপির বিরুদ্ধে এবার আক্রমণ শানালেন প্রদেশ তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক সম্রাট তপাদার।

0
105

Bengal Watch ka দেওয়া সাক্ষ্যাৎকারে বিজেপি পশ্চিমবঙ্গে দাঙ্গা লাগাতে চাইছে বলে অভিযোগ করেন সম্রাট।বিজেপির গণতন্ত্র রক্ষার নামে যে রথ বেরোচ্ছে তাকে কটাক্ষ করে বলেন,আসলে ওটা সম্প্রীতি নষ্ট করার রথ।

ওই রথযাত্রার নাম করে মানুষের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করতে চাইছে বিজেপি।শুধু তাই নয় রথযাত্রাকে সামনে রেখে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের করা একের পর এক মন্ত্যবের তীব্র নিন্দা করেন সম্রাট।বলেন,দিলীপ ঘোষ যে ভাষায় কথা বলছেন তা আদতে বাঙালী জাতিরই অসম্মান।

কারণ আমরা বাঙালীরা এধরণের ভাষা শুনতে অভ্যস্ত নয়।ওনাকে দেখে মনে হচ্ছে কোনও ঠেকে বসে উনি কথাগুলো বলছেন।তবে উনি যে অভদ্র ও রুচিবোধহীন তা তার কথা শুনলেই বোঝা যায়।এদিন দিলীপকে সম্রাটের হুশিয়ারী আমরা চুপ রয়েছি বলে এমন নয় যে উনি আমাদের নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও সর্বভারতীয় যুব তৃণমূল সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নামে যা কিছু বলবেন তা আমরা সহ্য করবো।

আমাদেরও একটা সহ্যের সীমা রয়েছে।অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের কথাতেই আমরা চুপ রয়েছি।না হলে ওনার মুখে এতদিনে চুন কালি ঘষে দিতাম।আমরা চাই রাজনৈতিক লড়াই রাজনীতিগত দিক থেকে হোক।তা ব্যক্তি আক্রমণ কিংবা ভাষা সন্ত্রাসের মধ্যে দিয়ে নয়।কারণ বাংলার মানুষ চাই সঠিক উন্নয়ন এবং সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি।

যা বাংলার জননেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাতে সম্পূর্ণ সুরক্ষিত।এদিন ত্রিপুরা রাজ্যের পঞ্চায়েত নির্বাচনের প্রসঙ্গ উল্লেখ করে সম্রাট বলেন,সেখানকার পঞ্চায়েত নির্বাচনে ৯৯ শতাংশ আসনে বিজেপির জয়লাভ যদি গণতন্ত্রের নমুনা হয় তাহলে বাংলার দিকে দোষারোপের আঙুল কেন?তাহলে সবার আগে ত্রিপুরাতেই বিজেপির গণতন্ত্র রক্ষার রথ বের করা উচিত।

তিনি আরও বলেন বিজেপির এই চক্রান্ত আমাদের নেতা তথা যুব সমাজের নয়নমণি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত ধরেই চূর্ণ হবে।আগামী নির্বাচনেই তা বিজেপি টের পাবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here