রামপুরহাট- বীরভূম :এ দিন বীরভূমের মহঃবাজার থানার বাতাসপুর গ্রামে এক গ্রাহকের কাছ থেকে ইলেকট্রিক অফিসের কর্মী পরিচয় দিয়ে টাকা নেওয়ার সময় হাতেনাতে ধরা পরল দুই প্রতারক।

ধৃতদের নাম শেখ রানা এবং শাহনাজ চৌধুরী। শেখ রানার বাড়ি হেরুকা গ্রামে এবং শাহনাজের বাড়ি মহঃ বাজারে। গত বুধবার দুপুর আড়াইটার সময় বাতাসপুর গ্রামের রাজকুমার মন্ডল বাড়িতে সাদা রঙের বোলোরো গাড়িতে চেপে আসে চার ব্যক্তি।

তারা ইলেকট্রিক সাপ্লাই অফিসের কর্মী বলে পরিচয় দেয়। রাজকুমার মন্ডল ও তার ভাই রবীন মন্ডলের মিটার চেক করে।

রাজকুমার মন্ডলকে পরের দিন ফোনে জানায় যে তাকে চল্লিশ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। তারা এত টাকা দিতে পারব না বলে পরিষ্কার জানিয়ে দেয়।

কাকুতিমিনতি করার পর জরিমানার টাকার পরিমাণ ছয় হাজার টাকা ঠিক হয়। রাজকুমার মন্ডলকে সোমবার সেই মোতাবেক টাকাটা জনৈক ব্যক্তির হাতে তুলে দিতে বলে শেখ রানা। সোমবার মহঃ বাজারে ইরিগেশন কলোনির বাসষ্ট্যান্ডের কাছে ওই টাকাটা তুলে দেবার সময় তৃণমূলের কর্মীরা হাতেনাতে ধরে ফেলেন দুই ব্যক্তিকে। তাদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তৃণমূল পার্টি অফিস আনা হয় এবং পরে মহঃম্মদবাজার থানায় খবর দেওয়া হয় ।শাওনাজ জানায় সেখ রানা তাকে ঐ ব্যক্তির কাছে থেকে টাকাটা আনতে বলেছিল। রানা নিজেকে সুপারভাইজার বলে পরিচয় দিত। জেরায় সেখ রাণা টাকা নেওয়ার কথা স্বীকার করে। মহঃম্মদ বাজার থানার পুলিশ দুই ব্যক্তিকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে। মহঃবাজার বিদ‍্যুৎ দপ্তরের আধিকারিক উজ্জ্বল কান্তি সেনকে জিঞ্জেস করা হলে তিনি বলেন-এ বিষয়ে আমি কিছু বলতে পারব না। মহঃম্মদ বাজার ব্লক তৃণমূল সভাপতি তাপস সিনহা বলেন- বেশ কিছুদিন ধরে ইলেকট্রিক সাপ্লাই এর কর্মী পরিচয় দিয়ে টাকা তোলার অভিযোগ আসছিল। আজ হাতেনাতে দুজনকে ধরা হয়েছে এবং পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। পুলিশ গোটা ঘটনার তদন্তে নেমেছেন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here