মালদা- অমানবিক ঘটনার সাক্ষী রইল মালদা ইংরেজবাজার থানার মহদিপুরের হঠাৎপাড়া। ঘর বন্দী করে বৃদ্ধ বাবাকে বেধরক মারধোর করল ছেলে বাবাকে বৃদ্ধাশ্রমে পাঠানোর অভীযোগ উঠেছে ছেলে লখন মন্ডলে বিরুদ্ধে।

এই ঘটনায় অসহায় ওই দম্পতি দ্বারস্থ হয়েছে ইংরেজবাজার থানার পুলিশের। অভিযুক্ত ছেলে এবং বৌমার নামে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে থানায়। পুরো ঘটনা তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।আবারো মনে করে দিছে সেই নচিকেতার সেই গান ছেলে আমার মস্ত মানুষ মস্ত অফিসার মস্ত ফ্লাটে যায়।

জানা গেছে ওই বৃদ্ধের নাম তিলোক মন্ডল।  তার একমাত্র ছেলে লক্ষ্মণ মণ্ডল। খুব ধুমধাম করেই ছেলের বিয়ে দিয়েছিলেন তিলোক বাবু। হার খাটুনি পরিশ্রম করে ছেলেকে একটু একটু করে বড় করে তুলেছিলেন এই আশাই একদিন ছেলেই হবে তার লাঠি। কিন্তু হলো তার উল্টোটা।

সেই ছেলেই আজ হয়ে উঠল বৃদ্ধ বাবা-মা’র কাল। স্ত্রীকে নিয়ে সুখের সংসার করতে হবে তাই বৃদ্ধ বাবা-মাকে পাঠাতে হবে বৃদ্ধাশ্রমে। এই নিয়ে গত দুবছর ধরেই তিলোক বাবু এবং তার স্ত্রীর ওপর অকথ্য অত্যাচার চালাত তার একমাত্র ছেলে লক্ষ্মণ মণ্ডল এবং তার স্ত্রী সবিতা মণ্ডল বলে অভিযোগ।

রবিবার এই নিয়ে ফের বিবাদ শুরু হয় বাবা মার মধ্যে। অভিযোগ এর পর তার ছেলে এবং বৌমা দুজনে মিলে তাকে ঘরবন্দী করে বেধড়ক মারধর করে মারধর করা হয় তার স্ত্রীকেও।  ঘটনায় দুই জনই গুরুতর আহত হয়। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে রাতেই মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসে। প্রাথমিক চিকিৎসার পর তাদের ছেড়ে দেওয়া হলে ওই বৃদ্ধ দম্পতি ইংরেজবাজার থানার পুলিশের দ্বারস্থ হয়।

অভিযুক্ত ছেলে লক্ষ্মণ মণ্ডল এবং স্ত্রী সবিতা মন্ডলের বিরুদ্ধে ইংলিশ বাজার থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়। পুরো ঘটনা তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

এ ঘটনায় আক্রান্ত ওই বৃদ্ধ তিলোক মন্ডল জানান, তাকে এবং তার স্ত্রীকে বৃদ্ধাশ্রমে পাঠিয়ে দেওয়ার জন্য ছোট কোন ঘটনা বিষয় নিয়ে মারধর করতো ছেলে ও বৌমা। এদিন রবিবার বাড়ির সামনে নোংরা পরিস্কার করতে বলে তাকে এবং তার স্ত্রীকে বেধড়ক মারধর করে ছেলে এবং বৌমা। এই ঘটনা আবারো প্রশ্ন উঠে প্রমান করলো এই বাস্তব সমাজে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here