আট বছর বয়সী অমরজিৎই বিশ্বের সর্বকনিষ্ঠ সিরিয়াল কিলার # সিদ্ধার্থ সিংহ

0
25

আট বছর বয়সী অমরজিৎই বিশ্বের সর্বকনিষ্ঠ সিরিয়াল কিলার

সিদ্ধার্থ সিংহ

‘বিশ্বের সর্বকনিষ্ঠ সিরিয়াল কিলার’ হিসেবে পরিচিতি পেয়েছে ভারতের ৮ বছর বয়সী বালক অমরজিৎ। এ বয়সেই তিন-তিনটি হত্যার অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে।

বিহারের মুশাহার গ্রামের এই বালক ২০০৬ সালে তার ছয় বছর বয়সী খুড়তুতো বোনকে খুন করে। এ ছাড়াও অনেকের ধারণা, নিজের আট মাস বয়সী বোনকেও সে নির্মম ভাবে খুন করেছে।

অমরজিতের কাকার মতে, ওর পরিবারের লোকেরা এই অপরাধের কথা জানতেন, তবে তাঁরা সে ভাবে মুখ খুলতেন না। কারণ তাঁরা মনে করতেন, এটা একটি ‘পারিবারিক সমস্যা’।

২০০৭ সালে অমরজিৎ তৃতীয় একটি শিশুকে হত্যা করার আগে পর্যন্ত সব কিছু এ ভাবেই চলছিল। তার শেষ খুনের শিকার হয় ছ’মাসের একটি শিশুকন্যা— খুশবু।

অমরজিতের প্রতিবেশী খুশবুর মা পুলিশকে জানান, মেয়েকে স্থানীয় একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ঘুম পাড়িয়ে রেখে কাজে গিয়েছিলেন তিনি। ফিরে এসে আর খুশবুকে খুঁজে পাননি।

সে সময় তাঁর মেয়েকে কেউ দেখেছে কি না পাড়ার বাচ্চাদের জিজ্ঞেস করা হচ্ছিল। সে সময় অমরজিৎকেও জিজ্ঞেস করা হয়। তখন সে অনায়াসে স্বীকার করে, খুশবুর মাথা ইট দিয়ে থেতলে এবং গলা টিপে শ্বাসরোধ করে সে খুন করেছে।

এর পরে সে গ্রামবাসীদের ঘটনাস্থলে নিয়ে যায়, যেখানে খুশবুকে সে পুতে রেখেছিল।

এই ঘটনায় থানা থেকে পুলিশ অমরজিৎকে ধরে নিয়ে যায়। পুলিশের কাছে সে স্বীকার করে, শুধু খুশবু নয়, তিন মাস আগে নিজের বোন এবং তারও আগে খুড়তুতো বোনকেও সে খুন করেছে।

পুলিশ ইন্সপেক্টর শতুধন কুমার জানান, সবগুলো হত্যাকাণ্ড প্রায় একই ভাবে করা হয়েছে। পুলিশ বলেছে, পুলিশি জেরার সময় অমরজিৎ শুধু হেসেই গিয়েছে। কোনও কথার উত্তর দেয়নি।

এই ঘটনা শুনে একজন মনোবিজ্ঞানী বলেছেন, এই বালক একজন স্যাডিস্ট, যে অন্যকে আঘাত করে আনন্দ পায়।

ভারতীয় আইন অনুযায়ী, ৮ বছর বয়সী কোনও শিশুকে কারাগারে পাঠানোর নিয়ম নেই। তাই কারাগারের পরিবর্তে ১৮ বছর বয়স না হওয়া পর্যন্ত তাকে শিশু নিবাসে রাখা হতে পারে। 

জানা গেছে, অমরজিৎকে আপাতত রাখা হয়েছে মুঙ্গের শহরের একটি শিশুদের হোমে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here