রবিবার রাতে উত্তর কলকাতার হেদুয়াতে একসঙ্গে ছ’টি বিড়ালের নৃশংস হত্যাকান্ড

0
32

মদনমোহন সামন্ত, ২৪ জুন, কলকাতা : রবিবার রাতের কলকাতায় নৃশংস হত্যাকান্ডের বলি হল ছ’ ছ’টি বিড়াল। বিড়ালগুলির একটি হুলো। একটি মা এবং বাকি চারটি ছোট বাচ্চা।

অভিযোগ স্থানীয় বাসিন্দাদের কেউ এই ন্যক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়েছেন। ঘটনাটি নিয়ে এলাকায় যথেষ্ট চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

এমন নৃশংসভাবে নিরীহ জীবগুলিকে কে বা কারা হত্যা করতে পারেন তা নিয়ে জোর চর্চা চলেছে সন্নিহিত অঞ্চলের বাসিন্দাদের মধ্যে। যদিও বিড়ালগুলিকে কিভাবে মারা হয়েছে তা নিয়ে নানা মুনির নানা মত শোনা গিয়েছে।

কারও মতে বিষ খাইয়ে হত্যা করা হয়েছে। কেউ বা আবার বলছেন পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। হত্যার কারণ সম্বন্ধেও যেমন ধোঁয়াশা থেকে গিয়েছে তেমনি হত্যার পদ্ধতি নিয়েও স্পষ্টতা বিন্দুমাত্র নেই। সকালে প্রাতঃভ্রমণকারীরা একসঙ্গে এতগুলি মৃত বিড়াল দেখতে পেয়ে পুরসভায় খবর দেন।

পুরকর্মীরা মৃতদেহগুলি সরিয়ে নিয়ে যান। এ নিয়ে সংশ্লিষ্ট থানায় কোন অভিযোগ রিপোর্ট পাঠানো পর্যন্ত দায়ের না করা হলেও ঘটনাটির পিছনে কে বা কারা রয়েছে তা নিয়ে উৎসাহিত মানুষজন শেষ পর্যন্ত খোঁজখবর করে নিশ্চিত হতে চেয়েছেন। তবে বিগত সময়ে হাসপাতাল চত্বরে ষোলটি কুকুরছানা পিটিয়ে মারার পর ফের কলকাতার বুকে একসঙ্গে ছটি বিড়ালকে এভাবে মারার ঘটনায় কলকাতা শহরে মানবিকতা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

এদিন পাড়ার লোকেরা পুরসভায় খবর দিলে পুরকর্মীরা এসে মৃতদেহগুলি নিয়ে যান। তবে বিড়ালগুলোকে বিষ দিয়ে মারা হয়েছে নাকি পিটিয়ে তা এখনও জানা যায়নি। কে বা কারা এই কাণ্ড ঘটিয়েছে তাও দেখা হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here