৪০০ বছরের পুরনো সোনামুখীর হট নগর কালীর ইতিহাসেই রোমাঞ্চ

0
314

কালী কার্তিকের জন্য বিখ্যাত সোনামুখী শহরের অন্যতম জনপ্রিয় কালী পুজো হলো হট নগর কালী। সোনামুখীর লালবাজারে রয়েছে এই পুজো ।এর ইতিহাস সত্যিই রোমাঞ্চকর।

 

 

হটনগর কালী পূজোর ট্রেজারার ও পেশায় প্রধান শিক্ষক সুজিত লাহা জানান আজ থেকে প্রায় ৪০০ বছর আগে তারিনী সূত্রধর নামে এক মহিলা বেলিয়াতোড়ের কাছে নিরিশা গ্রামে যেতেন চিঁড়ে বিক্রি করতে। আর ফেরার পথে একটি পুকুরের ধারে বসে তিনি মুড়ি খেতেন।

সেখানে একটি শ্যামাঙ্গিণী মেয়ে রোজ তার কাছে বায়না ধরত তার বাড়ি যাবার জন্য। কিন্তু রোজ তিনি তাকে বলতেন না তুমি তো হেঁটে যেতে পারবেনা। খুব ভারী লাগবে তোমাকে নিয়ে যেতে। একদিন তার সেই বারবার কাতর আবেদনে সাড়া দিয়ে তিনি তাকে ঝুড়িতে চাপিয়ে সোনামুখীর উদ্দেশ্যে রওনা হন।

কিন্তু বাড়িতে এসে দেখলেন সেখানে সেই মেয়েটি নেই তার বদলে একটি পাথর রয়েছে। তিনি কিছু বুঝতে পারলেন না। সেদিন রাতেই মা কালী থাকে স্বপ্ন দিলেন আমি তোর বাড়িতে এসেছি আমি পূজো নিতে চাই। তিনি সেই স্বপ্নের কথা লালবাজারে সবাইকে বললেন ।লালবাজার বাসি তখন তাকে পূজো শুরু করতে বললেন।

তিনি পুজো শুরু করতে চাইলেও তখন কোন পুরোহিত তার পুজো করতে রাজি হল না। কিন্তু তার কয়েকদিন পরে পূজো করতে অস্বীকার করা এক পুরোহিত অসুস্থ হয়ে পড়েন। একদিন ঐ পুরোহিত কে মা কালী স্বপ্ন দেন ।

বললেন তুই বাড়ি থেকে পুজো নিয়ে যা আর ওই পুজো শুরু কর তাহলে তোর রোগ সেরে যাবে ।পুরহিত পরের দিন সকালে স্নান সেরে নিজের বাড়ি থেকে পুজো নিয়ে গিয়ে সেই পুজো শুরু করলেন। যেআঁকোড় গাছের তলায় তারিণী সূত্রধর প্রস্তর খন্ডটি রেখেছিলেন তার তলাতেই শুরু হলো পুজো। আর সেই থেকেই রীতি রয়েছে।

L lpএই মন্দিরের পুরোহিতকে নিজেকেই পূজো নিয়ে আসতে হবে বাড়ি থেকে । তারপরে অন্যান্যরাও সেখানে পুজো দেবেন। সেই থেকেই সেই পুজো প্রচলন হলো ।

 

 

 

পরবর্তীকালে তারিনী সূত্রধর সেখানের বাবু পাড়ার জমিদার কাদম্বিনী দেবীকে তার স্বপ্নের কথা ও পূজোর কথা বলেন। তিনিই সেখানে পুরাতন মন্দিরটি নির্মাণ করেন। গত বছর মায়ের এক ভক্ত নতুন মন্দিরটি পুনর্নির্মাণ করেন।

 

 

কিন্তু কি ভাবে এল এই হটনগর নাম। কথিত আছে এই কালী পূজা শুরু হওয়ার কিছু দিনের মধ্যেই এক হটযোগী সেখানে এসে সাধনা শুরু করেন। সেই থেকেই নাম হয় হটনগর কালী।

 

 

সেই থেকেই অত্যন্ত নিষ্ঠার সাথে এখানের মানুষ এই কালী পূজা করে আসছেন। দূর দূরান্ত থেকে মানুষ এই কালী পূজা দেখতে আসেন। নতুন মন্দিরের সামনে তারিণী সূত্রধর ও হটযোগীর মূর্তি বসানো আছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here