হাবড়ায় গ্রেফতার বেআইনি টিকিট ব্যবসায়ী

0
44

বেঙ্গল ওয়াচ ডিজিটাল ডেক্সঃ বে-আইনি ভাবে দূরপাল্লার ট্রেনের টিকিট বিক্রি করার অভিযোগে তিন ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করল আরপিএফ । উদ্ধার হয় লক্ষাধিক টাকার বে-আইনি টিকিট।শনিবার রাত আট-টা নাগাদ আরপিএফ ও ক্রাইম আধিকারিকেরা গোপন সূত্রে খবর পেয়ে হানা দেয় হাবরা ষ্টেশন এলাকায় ।

উড়ান ও আস্থা নামে দুই ট্রাভেল এজেন্সির ঘর থেকে প্রায় চার লক্ষ টাকার টিকিট বাজেয়াপ্ত করে৷ওই এজেন্সির তিনজন কে গ্রেফতার করে৷ধৃতদের নাম বিজয় কুমার দাস ,সঞ্জীবন ঘোষ, ও কৃষ্ণপদ দাস ।

ধৃত দের বাড়ি হাবরার শ্রীনগর এলাকায়।হাবড়া রেলস্টেশন এলাকার সুপার মাকেটে “আস্থা এবং উড়ান” নামে দুটি ট্রাভেল এজেন্সি দোকান রয়েছে। এই দোকানেই দীর্ঘদিন ধরে অবৈধ ভাবে রেলের টিকিট বিক্রি হচ্ছিল বলে অভিযোগ। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে রেল পুলিস এবং ক্রাইম আধিকারিকেরা শনিবার হানা দেয় দুই দোকানে।
ঘটনার তদন্তে নেমে রেল পুলিশের আধিকারিকরা জানতে পারেন, বিভিন্ন নামে আইআরসিটিসির একাধিক ভুয়ো আইডি খুলে দূরপাল্লার ট্রেনের টিকিট হাতিয়ে দেওয়ার কারবার চলছিল৷

অভিযোগ, অনলাইন থেকে টিকিট হাতিয়ে পরে তা গ্রাহকদের চাহিদা অনুযায়ী মোটা টাকায় বিক্রি করা হত৷ বেশি দাম দিয়ে টিকিট কিনতে অস্বীকার করা হলে যাত্রীদের সাফ জানিয়ে দেওয়া হত, বাড়তি টাকা না দিলে মিলবে না টিকিট৷ কাউন্টার থেকে টিকিট কাটলে মিলবে ওয়েটিং টিকিট৷ অগত্যা, মোটা টাকার বিনিময়ে ‘কনফার্ম টিকিট’ কাটতে বাধ্য হতেন যাত্রীরা৷বারবার অভিযোগের পরেই হানা দেয় পুলিশ, উদ্ধার হয় প্রায় চার লক্ষ টাকার রেল টিকিট।রেল পুলিস সুত্রে খবর, দীর্ঘ দিন ধরে এই দুই সংস্থা একাধিক মানুষের নামে একাধিক ফেক আইডি বানিয়ে অন লাইনে মোটা টাকায় টিকিট বিক্রি করছিল। সেই মতো তল্লাসিতে গিয়ে হাতেনাতে ৩ জনকে গ্রেপ্তার করে রেল পুলিস।

উড়ান ট্রাভেল এজেন্সির মালিক সঞ্জীবন ঘোষ ও কৃষ্ণেন্দু দাস এবং আস্থার মালিক বিজয় কুমার দাস কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।এই ট্রাভেল এজেন্সির অফিস গুলিতে তল্লাসি চালিয়ে উদ্ধার হয়েছে একশোটি টিকিট। ধৃত তিনজনকে বনগাঁ আদালতে তোলা হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here