তৃণমূল কংগ্রেসের মাদার গোষ্ঠীর কার্যালয়ে বোমা ছোড়ার ঘটনায় উত্তেজনা ফের ছড়াল দিনহাটায়

0
50

নিজস্ব প্রতিনিধি : আজ ওই ঘটনার প্রতিবাদে ওকড়াবাড়ী বাজারে দিনহাটা-গীতালদহের রাস্তা অবরোধ করে অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের দাবী জানায় মাদার গোষ্ঠীর কর্মী সমর্থকরা। তাদের অভিযোগ, গতকাল রাতে তৃণমূল যুব’র নাম করে একদল দুষ্কৃতি তাদের দলীয় কার্যালয়ে এসে পরপর দুটি বোমা ছোড়ে।

এরমধ্যে একটি দলীয় কার্যালয়ের ভিতরে বিস্ফোরণ হয়। এতে কার্যালয়ের ভিতরে থাকা দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছবি সহ বেশ কিছু জিনিসপত্র মারাত্মক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে বিস্ফোরণ না হওয়া অন্য একটি বোম উদ্ধার করে নিয়ে আসে বলে জানা গিয়েছে।

দিনহাটা ১ নম্বর ব্লক তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি নূর আলম হোসেন যুব গোষ্ঠীর নাম না নিয়ে বলেন, “দুষ্কৃতিরা এলাকায় বোমা পিস্তল নিয়ে দাপিয়ে বেড়াচ্ছে। এর আগে আমাদের এক পঞ্চায়েত সদস্যকে খুন করেছে। এবার দলীয় কার্যালয়ে বোমা ছুড়ল। দিনের পর দিন এভাবে চলতে পারে না। তাই পুলিশ ওই দুষ্কৃতিদের যাতে দ্রুত গ্রেপ্তার করে, সেই দাবী নিয়ে সেখানকার দলীয় কর্মী সমর্থকরা রাস্তায় নেমেছিল। আমরা ঘটনার কথা জেলা ও রাজ্য নেতৃত্বকে জানিয়েছি। তারা যথাযথ ব্যবস্থা নেবেন বলে আমরা আশাবাদী।” দিনহাটা ১ নম্বর ব্লক তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সভাপতি নারায়ণ শর্মা বলেন, “মাদার গোষ্ঠীর দুষ্কৃতিরা নিজেরাই দলীয় কার্যালয়ে বোমা ছুড়ে যুব’র নাম দিচ্ছে। এভাবে চক্রান্ত করে যুবদের আটকানো যাবে না।”

বৃহস্পতিবার রাতে দিনহাটা ২ নম্বর ব্লকের নয়ারহাটে ফজিজার রহমানকে ছুরিকাহত করার ঘটনা ঘটে। ওই ঘটনার পরের দিন স্থানীয় বিধায়ক উদয়ন গুহের নেতৃত্বে যুব কর্মী সমর্থকরা নয়ারহাট গোবরাছড়ায় গিয়ে দলের মাদার গোষ্ঠীর একটি দলীয় কার্যালয় দখল করে বলে অভিযোগ। শুধু তাই নয়, পথ অবরোধ করে যুব কর্মীকে ছুরিকাহত করার ঘটনায় অভিযুক্তদের গ্রেপ্তারের দাবী জানায়।

এরপরেই পুলিশ সক্রিয় হয়ে ৪ জনকে গ্রেপ্তারও করে বলে জানা গিয়েছে। ওই ঘটনার কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই ফের ওকরাবাড়ীতে তৃণমূল কংগ্রেসের মাদার গোষ্ঠীর কার্যালয়ে হামলার ঘটনায় আরও চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here