সম্পত্তি সংক্রান্ত বিবাদের জেরে ভাই ও ভাইয়ের বউ কে হত্যা করতে ভাড়াটে গুন্ডা লাগানোর অভিযোগ দিদি জামাই বাবুর বিরুদ্ধে

0
72

অতনু গোস্বামী, নদীয়া : সম্পত্তি সংক্রান্ত বিবাদের জেরে বাড়ি থেকে উৎখাত করার জন্য ভাড়াটে গুন্ডা ঠিক করে ভাই ও ভাইয়ের বউ কে হত্যা করার পরিকল্পনা করার অভিযোগ উঠল দিদি জামাইবাবুর বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে নদীয়ার লালবাগ থানার হবিবপুরে।

ভাড়াটে গুণ্ডা দের দ্বারা আক্রান্ত ভাই নারায়ণ দেবনাথ বর্তমানে রানাঘাট মহকুমা হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে লড়াই করছেন। এই ঘটনার পর থেকেই প্রাণ বাঁচাতে ভাইয়ের বউ বকুল দেবনাথ বর্তমানে বাপের বাড়িতে আশ্রয় নিয়েছেন।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, রানাঘাট থানার অন্তর্গত হবিবপুর নাথ এলাকার এলাকার বাসিন্দা নারায়ন দেবনাথ এর সাথে জমি সংক্রান্ত বিবাদ নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে অশান্তি চলছিল বিবাহ সূত্রে বর্তমানে পাল পাড়ার বাসিন্দা আক্রান্ত নারায়ন বাবুর দিদি জামাইবাবু দিপালী পন্ডিত ও শম্ভু পন্ডিতের সাথে। জানা যায়, পৈত্রিক সম্পত্তি ভাগাভাগি নিয়েই এই অশান্তির সূত্রপাত।

কিছুদিন আগে দুই ভাই বোনের মধ্যে সমান ভাগে সম্পত্তি বন্টন হলেও সেই সময় কোন কারণবশত উভয়ের জমির দিক নির্ণয়টি বাকি ছিল। বর্তমানে কে কোন দিকের অধিকারী হবে তা নিয়ে অশান্তি বাদে ভাই বোনের মধ্যে।

অভিযোগ, নারায়ণ দেবনাথ জমির যে অংশে বসবাস করেন সেই অংশটি নেবার জন্য দাবি করে বসেন দিদি দিপালী ও শম্ভু পন্ডিত। দিদির দাবিমতো নারায়ন দেবনাথ সেই জায়গা ছাড়তে অস্বীকার করলে বিবাদ চরম আকার ধারণ করে এবং নারায়ণ দেবনাথ ও তার স্ত্রীকে প্রাণে মারার হুমকি দিয়ে নিজের বাড়িতে ফিরে যান দিদি দিপালী দেবী ও তার স্বামী শম্ভু দেবনাথ।

এরপর সোমবার গভীর রাতে নারায়ন দেবনাথের বাড়িতে দীপালী দেবীরা সশস্ত্র অবস্থায় কয়েকজন কয়েকজন যুবককে নিয়ে হাজির হয়ে লোহার রড ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে নারায়ন বাবু ও তাঁর স্ত্রী বকুল দেবীকে আক্রমণ করলে গুরুতর আহত অবস্থায় কোন মতে বাড়ি থেকে পালিয়ে প্রাণে বাঁচেন নারায়ন বাবু ও তাঁর স্ত্রী বকুল দেবী।

অভিযোগ এই ঘটনার পর থেকে প্রাণ সংশয় বাড়ি ফিরতে পারছেন না দেবনাথ দম্পতি। এরপর রানাঘাট থানায় সম্পূর্ণ বিষয়টি জানিয়ে লিখিত আকারে অভিযোগ দায়ের করেন আক্রান্ত নারায়ন বাবুর স্ত্রী বকুল দেবী।অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে রানাঘাট থানার পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here