অসহায় পথহারা মহিলাকে পরিবারের সাথে মেলানোর পদক্ষেপ নিলো শান্তিপুরের সমাজকর্মীরা

0
20

সুর্য চট্টোপাধ্যায়, নদীয়া : রাত ১১.৩০ নাগাদ শান্তিপুর বাসস্ট্যান্ড সংলগ্ন এলাকায় শান্তিপুরের কিছু সমাজকর্মী এক মহিলাকে অসহায় ভাবে এদিক ওদিক ঘোরাফেরা করতে দেখে তাঁকে একজায়গায় বসিয়ে কিছু খাবার খেতে দিয়ে তাঁর সম্পর্কে জিজ্ঞাসাবাদ করে।

জানা যায় মহিলাটির নাম অর্চনা দাস এবং তিনি অবিবাহিত এবং তাঁর বাবা সুধীর চন্দ্র দাস অনেকদিন আগেই মারা গেছেন।পশ্চিম রায়পুর পঞ্চাননতলা ব্যানার্জীহাট, মহেশতলা থানা এলাকায় তিনি মা এবং ভাইয়ের সঙ্গে থাকতেন। কোনো কারণে ওই মহিলা ঘুরতে ঘুরতে শান্তিপুর এসে পড়ে এবং ঘুরতে থাকে। মানসিকভাবেও ওই মহিলা দুর্বল এটা বোঝা যায়। সমাজ ও পরিবেশ কর্মী অনুপম সাহা তৎক্ষণাৎ শান্তিপুর থানায় বিষয়টি জানান এবং শান্তিপুর থানার বড়বাবু মুকুন্দ চক্রবর্তীর অনুমতি ও সহযোগীতায় ওই মহিলাটিকে রাতের জন্য থানাতেই রাখা হয়।

আজ শান্তিপুর থানার অনুমতি নিয়েই সমাজকর্মীরা মহেশতলা থানার সাথে যোগাযোগ করে মহিলাটির বিশদ বিবরণ দিয়ে তাঁর পরিবারকে খুঁজে বের করার আবেদন জানান। এই মুহূর্তে শান্তিপুরের সমাজকর্মীদের এবং

শান্তিপুর থানার যৌথ উদ্যোগে অর্চনা দাসকে তাঁর পরিবারের হাতে তুলে দেওয়ার যাবতীয় ব্যাবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। এক্ষেত্রে শান্তিপুর থানার ওসি- এবং অন্যান্য আধিকারিকদের ভূমিকা যথেষ্ট প্রশংসনীয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here