প্রতিবন্ধী অন্তঃসত্ত্বা গৃহবধূকে খুনের অভিযোগ বিষ্ণুপুরে

0
33

 তারাশঙ্কর গুপ্ত,বাঁকুড়াঃ তাদের বিয়ে হয়েছিল ভালোবেসে। কিন্তু তার পরেও পরেও ইঁট দিয়ে থেতলে সেই প্রতিবন্ধী অন্তঃস্বত্ত্বা গৃহবধূকে খুনের অভিযোগ উঠলো স্বামী সহ শ্বশুর বাড়ি লোকেদের বিরুদ্ধে। মৃতার নাম রমা মাজি (২৭) । বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুর থানার মধুবন গ্রামে এই ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ায়।

সূত্রের খবর ২০১৬ সালে মধুবন গ্রামের যাদব মাঝি ভালোবেসে বিয়ে করে ঐ গ্রামেরই প্রতিবন্ধী রমা মাজিকে ।অভিযোগ উঠেছে বিয়ের পর থেকেই নাকি ঐ গৃহবধূকে শ্বশুর বাড়িতে শারিরীক ও মানসিক নির্যাতন সহ্য করতে হতো ।

মৃতার পরিবার সূত্রে খবর ইতিমধ্যে বেশ কয়েকবার ঐ গৃহবধূ এই অত্যাচারের কথা পুলিশে লিখিতভাবে জানিয়েও ছিলেন। সম্প্রতি প্রাণহানির আশঙ্কা করে মৃত রমা মাজি বিষ্ণুপুরের এসডিপিওকে চিঠি ও লেখেন।

সেখানে তিনি শ্বশুর বাড়ির লোকজন তাকে অত্যাচার করে বলে তিনি অভিযোগ করেন। পরে শুক্রবার সকালে ঐ অন্তঃস্বত্তা গৃহবধূ রমা মাজিকে তার স্বামী যাদব মাজি মাথায় ইঁট দিয়ে থেৎলে দেয় বলে অভিযোগ। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে বিষ্ণুপুর জেলা হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানেই তার মৃত্যু হয়।

মৃতার মামা শঙ্কর বসানী তার ভাগ্নী রমা মাজিকে তার স্বামী যাদব মাজি ইঁট দিয়ে থেৎলে খুন করেছে বলে অভিযোগ করে বিষ্ণুপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

মৃত রমা মাঝির মামা শঙ্কর বসানী জানান গত বুধবার এসডিপিও দু’পক্ষকে ডেকে আলোচনা ও করেন। কিন্তু তার পরেও যাদব মাঝি তার ভাগ্নিকে খুন করে আত্মসমর্পণ করেছে। ঘটনার তদন্ত চলছে বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here