রাস উপলক্ষে জলপথ পরিবহনে নজরদারি

0
58

অতনু গোস্বামী, নদীয়াঃ-
শ্রীধাম নবদ্বীপের ও মায়াপুরে প্রবেশদ্বারের অন্যতম মাধ্যম হলো ভাগীরথী নদীর ওপর জলপথ পরিবহন।

স্বরুপগঞ্জ নবদ্বীপ ও মায়াপুর মিলে সর্বসাকুল্যে তিনটি খেয়া ঘাটের মাধ্যমে প্রতিদিন নিত্য যাত্রী ও বহিরাগত দর্শনার্থী সহ হাজার হাজার মানুষ যাতায়াত করেন শ্রীধাম নবদ্বীপ ও মায়াপুরে।

আগামী ২৩ শে নভেম্বর নবদ্বীপের জনপ্রিয় রাস উৎসব উপলক্ষে দূরদূরান্ত থেকে আগত লক্ষ লক্ষ মানুষের সমাগম ঘটে নবদ্বীপ ধামে। পরিবহনের দিক থেকে তার উল্লেখযোগ্য প্রভাব পড়ে ভাগীরথী নদীতে জলপথে খেয়া পারাপারের উপর।

এই বিশেষ দিনের যাত্রী সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে উদ্যোগ নিতে দেখা গেল নবদ্বীপ ব্লক প্রশাসনসহ পুলিশ প্রশাসনকে।

মঙ্গলবার বিকালে স্বরুপগঞ্জ খেয়াঘাটে টিকিট কেটে নবদ্বীপ ঘাটের নৌকায় উঠার আগে যাত্রী সকলকে লাইফ জ্যাকেট পরিধান করে নৌকোয় উঠে নদী পারাপার করার জন্য অনুরোধ করলেন নবদ্বীপের সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিক বরুণাশীষ সরকার। উপস্থিত ছিলেন নবদ্বীপ পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি হরিদাস দেবনাথ।

এর আগে স্থানীয় প্রশাসনের তরফ থেকে গত ঝুলন পূর্ণিমার সময় প্রতিটা খেয়াঘাটে আনুষ্ঠানিক ভাবে যাত্রীদের লাইফ জ্যাকেট পড়ানোর উদ্যোগ নিতে দেখা গিয়েছিল। কিন্তু তার ফলশ্রুতি হিসেবে যাত্রীদের জ্যাকেট ব্যবহার করার অনীহা ও পরিবহন সমিতির কর্মীদের একাংশের গাফিলতিতে বর্তমানে লাইফ জ্যাকেট গুলি ঘাটের এক কোনায় স্তূপাকার হয়ে পড়ে থেকে ব্যাবহারের অযোগ্য হয়ে যাচ্ছে।

সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিক বরুণাশীষ বাবু বলেন, যাত্রীদের সুরক্ষার দিকে লক্ষ্য রেখে এখন থেকে লাইফ জ্যাকেট ব্যবহারের জন্য ফেরি ঘাট গুলিতে লাগাতার নজরদারি চালাবে প্রশাসন।

অন্যদিকে এই দিন সন্ধ্যায় পরিবহন দপ্তর ও নদিয়া জেলা পরিষদের যৌথ উদ্যোগে এবং নবদ্বীপ পঞ্চায়েত সমিতির সহযোগিতায় স্বরুপগঞ্জে নবনির্মিত বাসস্ট্যান্ডের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন নদীয়া জেলা শাসক সুমিত গুপ্তা। এই উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন নদীয়া জেলা পরিষদের সভাপতি রিক্তা কুন্ডু সহ সদর মহকুমা শাসক অম্লান তালুকদার ও নবদ্বীপ ব্লক সমষ্টি উন্নয়ন আধিকারিক বরুণাশীষ সরকার, নবদ্বীপের বিধায়ক তথা পশ্চিমবঙ্গ সরকারের প্রাক্তন মন্ত্রী পুন্ডরীকাক্ষ সাহা ও নবদ্বীপ পুরসভার পুরপ্রধান বিমান কৃষ্ণ সাহা প্রমূখ।
আনুমানিক কোটি টাকা ব্যয় নবনির্মিত স্বরুপগঞ্জ এই বাসস্ট্যান্ডে একসাথে কুড়িটি বাস থাকবার ব্যবস্থা রয়েছে। নতুন নেই বাস স্ট্যান্ড পেয়ে স্বাভাবিক ভাবেই খুশি স্বরুপগঞ্জ এলাকার স্থানীয় বাসিন্দারা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here