বুধবার হাইকোর্টে মুচলেকা রাজ্যের স্বাস্থ্যসচিব নারায়ন স্বরূপ নিগমের # বাঙ্গুর ইনস্টিটিউট অফ নিউরোলজির প্রাক্তন ডিরেক্টর তথা বিশিষ্ট স্নায়ুশল্য চিকিৎসক শ্যামাপদ গড়াইয়ের বেতন এবং পেনশন বাবদ যাবতীয় বকেয়া মিটিয়ে দেওয়া হবে

0
147

নিজস্ব সংবাদদাতা # কলকাতা হাই কোর্টের  নির্দেশ মতো বাঙ্গুর ইনস্টিটিউট অফ নিউরোলজির প্রাক্তন ডিরেক্টর তথা বিশিষ্ট স্নায়ুশল্য চিকিৎসক শ্যামাপদ গড়াইয়ের বেতন এবং পেনশন বাবদ যাবতীয় বকেয়া মিটিয়ে দেওয়া হবে।

বুধবার হাইকোর্টে উপস্থিত হয়ে এই মর্মে মুচলেকা দিলেন রাজ্যের স্বাস্থ্যসচিব নারায়ন স্বরূপ নিগম।

এর আগে তার বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার রুল জারি করে বিচারপতি সৌমেন সেন ও বিচারপতি সৌগত ভট্টাচার্য ডিভিশন বেঞ্চ।

২০১৯ সালের ২৪ ডিসেম্বর শ্যামাপদ গড়াইয়ের বিরুদ্ধে রাজ্য সরকারের জারি করা তদন্ত প্রক্রিয়া খারিজ করে সুদ-সহ সমস্ত বকেয়া এবং পেনশন মিটিয়ে দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল হাই কোর্ট।

প্রায় বছর খানেক ঘুরতে গেলেও চিকিৎসকের বকেয়া মেটায়নি রাজ্য সরকার।

সেই কারণে ফের তিনি হাইকোর্টের দ্বারস্থ হযন।

সেই মামলায় আদালত অবমাননার রুল জারি করে স্বাস্থ্যসচিব নারায়ন স্বরূপ নিগম ও বাঙ্গুর ইনস্টিটিউট অফ নিউরোলজির  বর্তমান ডিরেক্টর মনোময় বন্দ্যোপাধ্যায়কে ডেকে পাঠিয়েছিল বিচারপতি সৌমেন সেন ও বিচারপতি সৌগত ভট্টাচার্যের ডিভিশন বেঞ্চ।

বৃহস্পতিবার হাইকোর্টে হাজির হয়ে শ্যামাপদ গড়াইয়ের বকেয়া মিটিয়ে দেওয়ার মুচলেকা দেন খোদ স্বাস্থ্যসচিব।

রাজ্যে  শাসক পরিবর্তনের অব্যবহিত পরে হাসপাতালে-হাসপাতালে আচমকা পরিদর্শন শুরু করেন মুখ্যমন্ত্রী তথা স্বাস্থ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ।

২০১১ সালের বিধানসভা নির্বাচনের ফল ঘোষণার মাসেই ২৬মে স্নায়ু-চিকিৎসার সেরা সরকারি হাসপাতাল বাঙ্গুর ইনস্টিটিউট অফ নিউরোলজি  পরিদর্শনে যান মুখ্যমন্ত্রী।

সে সময় মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বাদানুবাদে জড়িয়ে পড়েন গড়াই।

এরপর তাঁকে সাসপেনশনের চিঠি পাঠানো হয়।

তাঁর বিরুদ্ধে বিভাগীয় তদন্ত শুরুরও বিজ্ঞপ্তি জারি হয়।

২০১৮ সালে অবসরের সময় পেরিয়ে গেলেও তদন্ত শেষ হয়নি।

অবশেষে হাইকোর্টে স্বস্তি পেলেন ডাক্তার গড়াই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here