এবার আলুচাষির মাথায় হাত # ৯০ টাকা কেজি আলু বীজের দাম এবার # গতবারে আলু বীজের দাম ছিল ৩৬ টাকা কেজি # পঞ্জাব থেকে আনা এই আলুবীজ আদতে সার্টিফায়েড না খাবার আলু # এই প্রশ্ন আলুচাষিদের # কে দেখবে আলুচাষির স্বার্থ # ভোট বৈতরণী নিয়ে ব্যস্ত সকলেই # বেঙ্গল ওয়াচের জন্য কলম ধরলেন বিশিষ্ট সাংবাদিক শ্যামলেন্দু মিত্র

0
90

# বেঙ্গল ওয়াচের জন্য কলম ধরলেন বিশিষ্ট সাংবাদিক শ্যামলেন্দু মিত্র #

।।।।।।।।।। শ্যামলেন্দু মিত্র ।।।।।।।।।
২০২১ সালের ভোট নিয়ে সবাই ব্যস্ত।
শাসক থেকে বিরোধী সবাই।
৪৫ টাকার আলু আর কদিনে ৫০ টাকা হয়ে গেল প্রায়।
কারও হেলদোল নেই।
সাধারণ আলু কিনে খাওয়া মানুষজনের পর এবার আলুচাষির মাথায় হাত।
 আলু বীজের কত দাম জানেন?
৯০ টাকা কেজি আলু বীজের দাম এবার।
গতবারে আলু বীজের দাম ছিল ৩৬ টাকা কেজি।
বাংলায় আলু বীজ হয় না বললেই চলে।
আলু বীজের সিংহ ভাগ আসে পঞ্জাব থেকে।
বামফ্রন্টের ফরওয়ার্ড ব্লকের কৃষিমন্ত্রী কমল গুহের সময় থেকে আজকের কৃষিমন্ত্রী আশিস ব্যানার্জির সময় পর্যন্ত  আলু বীজের সমস্যা সেই তিমিরেই।
২০১১ সালে ক্ষমতায় এসে পরিবর্তিত সরকার বলেছিল, বাংলার আলু বীজের চাহিদা বাংলাই পূরণ করবে।
তার জন্য প্রতিটি ব্লকের কৃষি ফার্মে আলু বীজ উৎপাদন করা হবে।
কিন্তু বাস্তব বলছে, আলু বীজের সিংহভাগ আসছে পঞ্জাব থেকে।
পঞ্জাব থেকে আসা আলু বীজ সার্টিফায়েড না খাবার আলুকেই বীজ হিসেবে বাংলার চাষিদের বিক্রি করা হচ্ছে তা দেখার কেউ নেই।
সার্টিফায়েড আলু বীজ আলাদা করে জমিতে চাষ করা হয়।
খাবার আলু আর বীজ আলু আলাদা।
বাংলায় এই সার্টিফায়েড বীজ আলু চাষ  প্রায় হয়ই না বলা যায়।
তার ফলে বছরের পর বছর পঞ্জাব থেকে বাংলায় বীজ আলু আসে।
এবারেও আসছে পঞ্জাব থেকে বীজ আলু।
কিন্তু তার দাম ৯০ টাকা কেজি।
পঞ্জাব থেকে আসা আলু বীজের গুণমান নিয়ে চাষিরাই প্রশ্ন তুলেছেন।
চাষিদের বক্তব্য,এই আলু বীজ পঞ্জাবের খাবার আলু। সার্টিফায়েড আলু বীজ নয়। বস্তায় বীজ আলু ছাপ মারা নেই।
বাংলা আলু চাষে উদ্বৃত্ত রাজ্য।
রাজ্যে বছরে ৬০ লাখ টন আলু লাগে খাবারের জন্য।
আলুর উৎপাদন  ১ কোটি টনের বেশি।
রাজ্যের ৪০০ হিমঘরে আলু রাখার পরে প্রচুর পরিমান আলু পার্শ্ববর্তী রাজ্যে যায়।
বাংলার আলুর দাম এবারে ৪৫ টাকা কেজি কেন হচ্ছে তার পাটিগণিত জানিয়েছেন হিমঘর মালকেরা।
হিমঘর থেকে যে আলু ২৭ টাকায় বিক্রি হচ্ছে তা আলু সিন্ডিকেটের জন্য ৪৫ টাকায় কিনতে হচ্ছে সাধারণ মানুষকে।
হিমঘরে আলু রেখে এবার কেজি প্রতি ১৪/১৫ টাকা লাভ পেয়েছে একশ্রেণির মানুষ।
এই অবস্থায় আলু চাষিদের মাথায় হাত।
৯০ টাকা কেজি কী করে আলু বীজের দাম হয়,তা বুঝে উঠতে পারছে না চাষিরা।
যে বীজ আলু বাংলায় ৯০ টাকা কেজিতে কিনতে বাধ্য হচ্ছেন চাষিরা,তার দাম আসলে কত?
পঞ্জাবে এই বীজ আলুর দাম কত?
আলু বীজেও কি সিন্ডিকেট?
তাছাড়া পঞ্জাব থেকে যে বীজ আলু আসছে তার প্যাকেটে বীজ বলে ছাপ মারা নেই বলে চাষিদের অভিযোগ।
তাহলে পঞ্জাব থেকে খাবার আলু নিয়ে এসে তা বীজ আলু বলে বিক্রি করা হচ্ছে?
এসব দেখবে কে?
সবাই ব্যস্ত আগামী ভোট বৈতরণী  নিয়ে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here