উন্নয়নের জন্য কেন্দ্রের বরাদ্দ টাকা না পাওয়ায় পুরমন্ত্রীকে চিঠি লিখে ক্ষোভ প্রকাশ আসানসোলের মেয়র জিতেন্দ্র তিওয়ারির # ফিরহাদ হাকিম বললেন, জিতেন্দ্র চলে যাইতে চাইলে যেতে পারে # চিঠি লেখার কী আছে

0
61

নিজস্ব সংবাদদাতা # কেন্দ্রের স্মার্ট সিটি প্রকল্পের তালিকায় জায়গা করে নিয়েছিল পশ্চিম বর্ধমানের শিল্পশহর আসানসোল।

 

স্মার্ট সিটির তালিকায় নথিভুক্ত হলে সেই শহরের উন্নয়নে ২০০০ কোটি টাকা দেয় কেন্দ্রীয় নগরোন্নয়ন মন্ত্রক।

 

কিন্তু রাজ্য সরকার সেই টাকা নেয়নি।

 

এই নিয়েই বেজায় ক্ষুব্ধ আসানসোলের তৃণমূল মেয়র জিতেন্দ্র তিওয়ারি।

 

পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমকে জিতেন্দ্র তিওয়ারি  চিঠিতে লিখেছেন………………..

 

১) আসানসোলের কাউন্সিলর ও পুরসভার কর্মী-আধিকারিকরা কঠিন পরিশ্রম করে যে উন্নয়ন করেছে, তার জন্য কেন্দ্রের স্মার্ট সিটি মিশনে জায়গা পেয়েছে আসানসোল।

 

২) সেই প্রকল্পের টাকা টাকা নিলে আসানসোলের সামগ্রিক উন্নয়নে বিরাট কাজে লাগত।

 

৩) কিন্তু শুধুমাত্র রাজনৈতিক কারণে সেই প্রকল্পের টাকা পাওয়া এবং এবং অন্যান্য সুবিধা নেওয়া হচ্ছে না।

 

এর পাশাপাশি কেন্দ্রের কঠিন বর্জ্য নিষ্কাশন প্রকল্পে ১৫০০ কোটি টাকা বরাদ্দ হয়েছিল।

 

সেটাও রাজনৈতিক কারণে নেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ তুলেছেন জিতেন্দ্র।

 

জিতেন্দ্রর আরও ক্ষোভ…………….

কেন্দ্রের এই সব প্রকল্পের বদলে নবান্ন প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল, রাজ্য সরকারই উন্নয়নের টাকা দেবে আসানসোল পুরসভাকে।

 

কিন্তু সেই টাকা তাঁরা পাননি বলেও চিঠিতে তোপ দেগেছেন পাণ্ডবেশ্বরের বিধায়ক।

 

পুরমন্ত্রীকে চিঠির পাশাপাশি সোমবার রানিগঞ্জ টিডিবি কলেজ এবং রানিগঞ্জ গার্লস কলেজের গভর্নিং বডি থেকে ইস্তফার চিঠি পাঠিয়েছেন উচ্চ শিক্ষা দফতরকে।

 

কারণ হিসেবে উল্লেখ করেছেন ‘ব্যক্তিগত ব্যস্ততা’।

 

চিঠির পর জিতেন্দ্রর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন………………

 

১) আমি এর আগে এই রকম ৭টি চিঠি দিয়েছি।

 

২) সেগুলি সামনে আসেনি।

 

৩) আমি আমার মন্ত্রীকে চিঠি দিয়েছি।

 

৪) সেই চিঠি কী ভাবে সংবাদ মাধ্যমে গেল, তা খতিয়ে দেখতে হবে।

 

৫) কেন্দ্র দিক বা রাজ্য, সেটা বড় কথা নয়, আমি চাই আসানসোলের উন্নয়ন।

 

আসানসোলের সাংসদ বাবুল সুপ্রিয় দীর্ঘদিন ধরে প্রায় একই অভিযোগ করে আসছিলেন।

 

জিতেন্দ্রর চিঠির পরে তিনি বলেন…………….

 

১) আমি অনেক দিন ধরেই বলে আসছি, কেন্দ্রের টাকা না নেওয়ায় আসানসোলের উন্নয়ন হচ্ছে না।

 

২) এ বার সেই কথাই বললেন জিতেন্দ্র।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here